করোনা পোশাক শ্রমিক

ডেস্ক রিপোর্ট ঢাকা; প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস সংকটের মধ্যে বিজিএমইএ’র সদস্যভুক্ত ৭১টি তৈরি গার্মেন্ট কারখানায় এখনও শ্রমিকদের মে মাসের বেতন হয়নি। এক হাজার ৮৫৫টি গার্মেন্ট কারখানা তাদের শ্রমিকদের মে মাসের বেতন পরিশোধ করেছে।

  • তৈরি গার্মেন্ট কারখানা মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর সর্বশেষ শুক্রবারের দেয়া তথ্যে দেখা যায়, যেসব কারখানার বেতন বাকি রয়েছে সেগুলোর অধিকাংশই আকারে ছোট বলে উল্লেখ করলেও সেগুলোর শ্রমিক সংখ্যার বিষয়ে কিছুই জানায়নি বিজিএমইএ। গত এপ্রিল মাসেও শতভাগ বেতন পরিশোধ করা হয়নি।

গত মার্চে দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরুর সময় বিজিএমইএর সদস্যভুক্ত পোশাক কারখানা ছিল দুই হাজার ২৭৪টি। এর মধ্যে কারখানার সংখ্যা এক হাজার ৯২৬টিতে নেমে এসেছে, বাকি কারখানাগুলো বন্ধ হয়ে গেছে।

  • বিজিএমইএর তালিকায় দেখা যায়, ঢাকা মহানগরীর ৩৩৩টি পোশাক কারখানার মধ্যে ৩১৪টি ইতোমধ্যে বেতন পরিশোধ করেছে, বাকি রয়েছে আরও ১৯টি। গাজীপুর অঞ্চলে ৭১৩টি কারখানার মধ্যে ৬৯৩টি বেতন দিয়েছে, বাকি রয়েছে ২০টি।
  তালেবান-নিরাপত্তা বাহিনী সংঘর্ষে রক্তাক্ত আফগানিস্তান, নিহত অর্ধশত

সাভার-আশুলিয়া এলাকার ৪১২টি কারখানার মধ্যে ৩৯৭টি বেতন পরিশোধ করেছে, বাকি রয়েছে আরও ১৫টি। নারায়ণগঞ্জ এলাকায় ১৯৮টি কারখানার মধ্যে ১৯৬টিতে বেতন দেওয়া হয়েছে, বাকি রয়েছে আরও দুটি।

চট্টগ্রাম অঞ্চলে ২৫২টি কারখানার মধ্যে ২৪০টিতে বেতন পরিশোধ করা হয়েছে, বাকি রয়েছে আরও ১২টি কারখানা। এছাড়া অন্যান্য প্রত্যন্ত অঞ্চলের ১৮টি কারখানার মধ্যে ১৫টিতে বেতন পরিশোধ করা হয়েছে।

আমাদের বাণী ডট কম/২৭  জুন ২০২০/পিপিএম