ওসি মোয়াজ্জেম গ্রেফতারে শুকরিয়া

ফেনীর সোনাগাজীতে মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফী হত্যার মামলায় রবিবার দীর্ঘ ২ মাস ১০ দিন পর পুলিশের তৎপরতায় সোনাগাজীর থানার কলঙ্কিত সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম গ্রেফতার হওয়ায় নিহত নুসরাত জাহান রাফীর মা ও বাবা সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন। একই সঙ্গে তারা প্রধানমন্ত্রী ও পুলিশ হেড কোয়ার্টারের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

সোনাগাজী থানার সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন দীর্ঘ ২ মাস ১০ দিন পলাতক থাকার পর রবিবার ঢাকায় পুলিশের হাতে গ্রেফতারের খবর শুনে নুসরাত জাহান রাফীর মা শিরিনা আক্তার ও বাবা মাওলানা মোহাম্মদ মুসা জানান, গ্রেফতারের খবর শুনে তারা আল্লাহর কাছে শুকরিয়া নামাজ আদায় করেন। তবে চার্জশীটে ২১ জনের নাম তালিকাভুক্ত হলেও ওসি মোয়াজ্জেমের নাম তালিকায় না আসায় তারা অত্যন্ত মর্মাহত। কেননা এই কর্মকর্তা তাদের নিহত মেয়ে নুসরাত জাহান রাফীকে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে কলঙ্কিত করে হত্যাকারীদের হত্যাকাণ্ডে উৎসাহিত করেছেন। পাশাপাশি মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজউদ্দৌলার বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ করতে থানায় গেলে মা ও মেয়েকে তৎকালীন ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন আপত্তিকর প্রশ্ন করেন এবং ভিডিও করে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেন। ফলে তারা বর্তমানে গ্রেফতারকৃত ওসি কে চার্জশীটে হত্যাকাণ্ডের সহযোগী হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করতে সরকারের নিকট দাবি জানান।

  খুলনায় একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্তের রেকর্ড

নুসরাতের বাবা-মা চান, পুলিশ হেড কোয়ার্টার রাফীকে নিজেদের মেয়ে মনে করে যে আন্তরিকতা দিয়ে দ্রুত কাজ করেছেন এবং এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে সম্পৃক্ত আসামিদের গ্রেফতার করে দ্রুততম চার্জশীট দিয়েছেন। এজন্য তিনি পুলিশ হেড কোয়ার্টারের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *