ডেস্ক রিপোর্ট, ঢাকাঃ  করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে এ পর্যন্ত ১৫৫ জন চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন দুই হাজার ৯১১ জন চিকিৎসক।

শুক্রবার বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) সভাপতি ডা. মোস্তাফা জালাল মহিউদ্দিন ও মহাসচিব ডা. মো. ইহতেশামুল হক চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীসহ চিকিৎসাসেবা সংশ্লিষ্ট মোট আট হাজার ২০৭ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) তথ্য অনুযায়ী, গত বছরের ১৪ এপ্রিল দেশে করোনায় প্রথম চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছিল। ওই বছরের জুন মাসে করোনাভাইরাসের সংক্রমণে সর্বোচ্চ ৪৫ জন চিকিৎসক মারা যান। সেপ্টেম্বর মাস থেকে চিকিৎসকদের মৃত্যুর হার কিছুটা কমে। গত বছর কনোরায় আক্রান্ত হয়ে মোট ১২৫ চিকিৎসকের মৃত্যু হয়।

  সীমান্তহত্যা শূন্যে নামিয়ে আনার প্রতিশ্রুতি বিএসএফ ডিজির

চলতি বছরের এপ্রিল মাসে আবার কনোরাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বেড়ে যায়। চলতি বছরের জানুয়ারিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান পাঁচ চিকিৎসক। ফেব্রুয়ারিতে মারা যান একজন। মার্চে মারা যান তিনজন। দেশে চলতি মাসেই করোনায় আক্রান্ত হয়ে ২১ চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে। এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে মোট ১৫৫ চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে- জানিয়েছে বিএমএ।

বিএমএ আরও জানায়, আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা ঢাকা বিভাগে সবচেয়ে বেশি। এরপরে চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অবস্থান। এসব বিভাগে ১০৫ জন চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে। বাকিরা রংপুর, বরিশাল ও রাজশাহী বিভাগের। এ পর্যন্ত আক্রান্ত নার্সের সংখ্যা দুই হাজার। এছাড়া আরও তিন হাজার ২৯৬ জন স্বাস্থ্যকর্মীসহ মোট করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন আট হাজার ২০৭ জন।

আমাদেরবাণী/মৃধা