Shadow

করোনায় সাবেক এমপি শাহজাহান তালুকদারের মৃত্যু

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ডেস্ক রিপোর্ট, ঢাকা;  জাতীয় পার্টি কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য, বগুড়া জেলা জাতীয় পার্টির সাবেক সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট শাহজাহান তালুকদার রবিবার মারা গেছেন।

  • আজ রবিবার (২৮ জুন ২০২০)  সকাল ১০টার দিকে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) মারা যান তিনি। শাহজাহান তালুকদার করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন ছিলেন বলে বলে জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যারের ডেপুটি প্রেস সেক্রেটারি খন্দকার দেলোয়ার জালালী নিশ্চিত করেছেন।

মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে রেখে গেছেন।

  • এদিকে শাহজাহান তালুকদারের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের। এক শোকবার্তায় প্রয়াতের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেছেন তিনি। পাশাপাশি শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনাও জানান জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান।

শোক বার্তায় জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান বলেন, প্রয়াত শাহজাহান তালুকদার ছিলেন পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের একান্ত অনুরাগী। গণমানুষের ভালোবাসায় সিক্ত ছিলেন তিনি। হতদরিদ্র মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে তার অবদান অক্ষয় হয়ে থাকবে। শাহজাহান তালুকদার-এর মৃত্যুতে জাতীয় পার্টি এক আদর্শবান নেতাকে হারাল।

  • জাতীয় পার্টি কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য, বগুড়া জেলা জাতীয় পার্টির সাবেক সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট শাহজাহান তালুকদারের মৃত্যুতে শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন জাতীয় পার্টি মহাসচিব ও বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ মসিউর রহমান রাঙ্গাঁ।

এদিকে বাংলাদেশের স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এর করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত হেলথ বুলেটিনের সর্বশেষ (২৮ জুন ২০২০) তথ্য অনুযায়ী, গত গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৪৩ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে মহামারি করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯)। ফলে ভাইরাসটিতে মোট ১৭৩৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে করোনায় আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৮০৯ জন। এতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১ লাখ ৩৭  হাজার ৭৮৭ । গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১৭ হাজার ৩৪টি আর পরীক্ষা করা হয়েছে পূর্বের মিলে ১৮ হাজার ৯৯টি। শনাক্তের হার ২১.০৫ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৪০৯ জন এবং এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৫৫ হাজার ৭২৭ জন। সুস্থতার হার ৪০.৪৪% এবং মৃত্যুর হার ১.২৬ শতাংশ। বয়স বিশ্লেষণে জানা যায়, ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে দুইজন, ৩১-৪০ একজন, ৪১-৫০ সাতজন, ৫১-৬০ ১৩ জন, ৬১-৭০ ১২ জন, ৭১-৮০ সাতজন এবং ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে একজন। এদের মধ্যে সর্বোচ্চ ২১ জন ঢাকা বিভাগের। এরপরই আছে চট্টগ্রাম বিভাগ (১০ জন)।

আমাদের বাণী ডট কম/২৮  জুন ২০২০/পিপিএম 

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ আর নেই