Shadow

গত ছ’দিনে ভারতে করোনায় আক্রান্ত ১ লক্ষ ১০ হাজার

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ডেস্ক রিপোর্ট, ঢাকা;  ভারতে অমিত শাহ-সহ বিজেপির নেতা-মন্ত্রীরা লাগাতার বলে চলেছেন, নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে দেশ জিতবেই। কিন্তু বাস্তব অন্য কথা বলছে। দিন যত গড়াচ্ছে, দেশে করোনা সংক্রমণ তত দ্রুত হারে ছড়িয়ে পড়ছে।

  • হিসেব বলছে, গত ছ’দিনে ভারতে ১ লক্ষ ১০ হাজারের বেশি মানুষ কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ১৯ হাজার ৪৫৯ এবং মারা গিয়েছেন ৩৮০ জন।

সংক্রমণের নিরিখে দেশে দ্বিতীয় স্থানে দেশটির রাজধানী দিল্লি। ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের হিসেব অনুযায়ী, দিল্লিতে করোনা আক্রান্ত ৮৩ হাজার ৭৭ জন। গত কয়েক দিনে দিল্লিতে সংক্রমণের সংখ্যা কিছুটা কমলেও তামিলনাড়ুতে সংক্রমণ দ্রুত হারে বাড়ছে।

  • দ্রুত করোনা সংক্রমণ বাড়ছে তেলঙ্গানাতেও। দক্ষিণের এই রাজ্যের এক মন্ত্রী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। দিন কয়েক আগে তাঁর নিরাপত্তারক্ষীর করোনা ধরা পড়ে। গত কাল সর্দি-কাশি নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন ওই মন্ত্রী। আজ তাঁর করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে।

এ বিষয়ে তেলঙ্গানার স্বাস্থ্যমন্ত্রী ই রাজেন্দ্র বলেন, ‘‘রাজ্যের বেশ কয়েকজন বিধায়ক কোভিড-১৯ আক্রান্ত। কিছু আমলা ও পুলিশ অফিসারও করোনা সংক্রমিত। যে কোনও মানুষই এই রোগে আক্রান্ত হতে পারেন।

  • এটা নিয়ে হইচই করার মতো কিছু নেই।’’ তবে পরিস্থিতি যে ক্রমশ ঘোরালো হচ্ছে তা প্রকারান্তরে মেনে নিয়েছে তেলঙ্গনা প্রশাসন। গ্রেটার হায়দরাবাদ পুর এলাকায় ফের লকডাউনের বিষয়ে চিন্তাভাবনা করছে প্রশাসন। একই অবস্থা তামিলনাড়ুতেও। চেন্নাইয়ের কিছু জায়গায় জারি হয়েছে লকডাউন।

সংক্রমণে দেশে শীর্ষে মহারাষ্ট্র। ওই রাজ্যে লকডাউনের মেয়াদ আগামী ৩১ জুলাই পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। আজ উদ্ধব সরকার লকডাউনের নতুন নির্দেশিকা জারি করেছে। তাতে বলা হয়েছে, সরকারি অফিসগুলিতে ১৫ শতাংশের বেশি কর্মী উপস্থিত থাকতে পারবেন না। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া আমজনতাকে রাস্তায় বার হতে নিষেধ করা হয়েছে। দোকানপাট, শপিং মল-সহ বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানগুলি সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত খোলা থাকবে।হরিয়ানার এক বিজেপি বিধায়ক করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। গত কাল তাঁর করোনা রিপোর্ট পাওয়া গিয়েছে। দিন কয়েক আগে সূর্যগ্রহণের সময় একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেনে তিনি। বিধায়কের পরিবারের সদস্যদের কোয়রান্টিনে পাঠানো হয়েছে। ওই ধর্মীয় অনুষ্ঠানে প্রায় ২০০ জন উপস্থিত ছিলেন। তাঁদের খোঁজ চলছে। আগামিকাল আনলক-২.০-এর গাইডলাইন ঘোষণা করতে পারে কেন্দ্র। আনলক-১ পর্বে সংক্রমণ যে হারে বেড়েছে, আনলক–২.০-এ পরিস্থিতি কোথায় পৌঁছবে তা নিয়ে শঙ্কিত অনেকেই।

  শিক্ষকদের বেতন বৃদ্ধি না করায় ইরানের শিক্ষামন্ত্রীর পদত্যাগ

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে বিশ্বে আক্রান্ত বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ কোটি ৪ লাখ ৯ হাজার ২৩৯ জনে। আর মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫ লাখ ৮ হাজার ৮৪ জনে। আন্তর্জাতিক জরিপকারী সংস্থা ওয়ার্ল্ডওমিটার এ খবর জানিয়েছে। সংস্থাটির ওয়েবসাইট থেকে আরও জানা গেছে, এ পর্যন্ত করোনায় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৫৬ লাখ ৬৪ হাজার ৪৯৩ জন।২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া এই ভাইরাসে এখন পর্যন্ত বিশ্বের ২১৫টি দেশ ও অঞ্চল আক্রান্ত হয়েছে। এদিকে আক্রান্ত ও মৃত উভয় সংখ্যার দিক থেকেই বর্তমানে বিশ্বে শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ২৬ লাখ ৮১ হাজার ৮১১ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে এক লাখ ২৮ হাজার ৭৮৩ জনের। মৃতের হিসাবে তালিকার দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ল্যাটিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল। দেশটিতে করোনায় মোট মৃত্যু হয়েছে ৫৮ হাজার ৩৮৫ জনের। আর আক্রান্ত হয়েছে ১৩ লাখ ৭০ হাজার ৪৮৮ জন। তৃতীয় স্থানে এবং ইউরোপের শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাজ্য। দেশটিতে করোনায় মৃতের সংখ্যা ৪৩ হাজার ৫৭৫ জন। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩ লাখ ১১ হাজার ৯৬৫ জন।

আমাদের বাণী ডট কম/৩০জুন ২০২০/পিপিএম

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •