সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেছেন, জাতির দায়মুক্তির জন্য একাত্তরের গণহত্যার প্রকৃত চিত্র খুঁজে বের করা জরুরি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু অধ্যাপক মুনতাসীর মামুনের নেতৃত্বে গণহত্যা-নির্যাতন ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গবেষণা কেন্দ্র সে জরিপ ও গবেষণা কাজটিই করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, দেরিতে হলেও এটি অত্যন্ত শুভ উদ্যোগ। এর মাধ্যমে একাত্তরের গণহত্যা, বধ্যভূমি ও নির্যাতন কেন্দ্রের প্রকৃত সংখ্যা বেরিয়ে আসবে। আর এ কাজ সফল করার জন্য সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের হাত সবসময় প্রসারিত থাকবে বলে জানান তিনি।

প্রতিমন্ত্রী শুক্রবার রাজধানীর বাংলা একাডেমির শামসুর রাহমান মিলনায়তনে গণহত্যা-নির্যাতন ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গবেষণা কেন্দ্রের উদ্যোগে আয়োজিত ‘গণহত্যা-বধ্যভূমি ও গণকবর জরিপ’ শীর্ষক দিনব্যাপী জাতীয় সেমিনারের উদ্বোধনী অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ সব কথা বলেন।

  আগামী বছর চালু হচ্ছে না পদ্মা সেতু

গণহত্যা-নির্যাতন আর্কাইভ ও জাদুঘর ট্রাস্ট এর সভাপতি বঙ্গবন্ধু অধ্যাপক ড. মুনতাসীর মামুন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব ড. মো. আবু হেনা মোস্তফা কামাল এনডিসি।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতা করেন গণহত্যা-নির্যাতন আর্কাইভ ও জাদুঘর এর ট্রাস্টি ড. মো. মাহবুবুর রহমান। সেমিনারে গণহত্যা-নির্যাতন বধ্যভূমি ও গণকবর সংক্রান্ত ১০টি জেলা জরিপ গ্রন্থ এর মোড়ক উন্মোচন করেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী। পরে দিনব্যাপী বিভিন্ন জেলার জরিপ বইয়ের উপর গঠন মূলক আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

আমাদের বাণী-আ.আ.হ/মৃধা

[wpdevart_like_box profile_id=”https://www.facebook.com/amaderbanicom-284130558933259/” connections=”show” width=”300″ height=”550″ header=”small” cover_photo=”show” locale=”en_US”]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *