মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর

ডিগ্রি কলেজে তৃতীয় শিক্ষক হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্তদের এমপিও দিতে সরকারের বছরে ব্যয় হবে ২৫ কোটি টাকা। বর্তমানে ৮৪১ জন ডিগ্রি পর্যায়ে তৃতীয় শিক্ষক হিসেবে কর্মরত আছেন। মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের একাধিক কর্মকর্তা  এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, গত ৪ এপ্রিল শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ থেকে ডিগ্রি তৃতীয় শিক্ষকদের এমপিওভুক্তির বিষয়ে মতামতসহ প্রতিবেদন চাওয়া হয়েছিল। শিক্ষা অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা প্রতিবেদন তৈরি করেছেন বলে দৈনিক শিক্ষাকে জানিয়েছেন ।

শিক্ষা অধিদপ্তরের এমপিও শাখার একাধিক কর্মকর্তা দৈনিক শিক্ষাকে জানান, ২০১০ খ্রিষ্টাব্দের এমপিও নীতিমালা জারি এবং এমপিওভুক্ত ডিগ্রি কলেজের জনবল কাঠামো ২০১০ প্রকাশের পর বিধি মোতাবেক নিয়োগ পেলেও তৃতীয় শিক্ষকরা এমপিওভুক্ত হতে পারেননি। এমপিওবিহীন শিক্ষকের সংখ্যা মোট ৮৪১ জন। এরমধ্যে গভর্নিং বডি কর্তৃক নিয়োগপ্রাপ্ত শিক্ষক ৭৭০ জন এবং এনটিআরসিএর সুপারিশে নিয়োগ পেয়েছেন ৭১ জন শিক্ষক। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে ডিগ্রি কলেজে তৃতীয় শিক্ষকদের সম্পর্কে প্রতিবেদনটি তৈরি করা হয়েছে। হিসেব অনুযায়ী তৃতীয় শিক্ষকদের এমপিও দিতে বছরে ২৫ কোটি ১ লাখ টাকা খরচ হবে। মূল বেতন ও ভাতা বাবদ এ টাকা খরচ হবে।

  প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগের ফল প্রকাশ পেছাল ১ সপ্তাহ

তাঁরা আরও জানান, ৮৪১ জন শিক্ষকের মূল বেতন বাবদ ২২ কোটি ২০ লাখ ২৪ হাজার টাকা, বাড়ি ভাড়া বাবদ ১ কোটি ৯২ হাজার টাকা, চিকিৎসা ভাতা বাবদ ৫০ লাখ ৪৬ হাজার টাকা, উৎসব ভাতা বাবদ ৯২ লাখ ৭১ হাজার টাকা এবং বৈশাখী ভাতা বাবদ ৩৭ লাখ টাকা ব্যয় হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *