পুলিশ

ডোপ টেস্টে ফেঁসে গেছেন ৬৮ জন পুলিশ সদস্য। মাদক সেবনের দায়ে কনস্টেবল থেকে উপপরিদর্শক পদমর্যাদার এসব পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে পুলিশ সদর দপ্তর। এর মধ্যে বেশ কয়েকজনকে চাকরি থেকে চূড়ান্তভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। তাদের মধ্যে ১০ সদস্যকে চাকরিচ্যুত ও আরও ১৮ জনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। ডিএমপির ডেপুটি কমিশনার (মিডিয়া উইং) ওয়ালিদ হোসেন সংবাদমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ডোপ টেস্টে পজিটিভ ৬৮ সদস্যের মধ্যে ৪৩ জনের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং ২৫ পুলিশের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলেও জানিয়েছেন তিনি। ডোপ টেস্টে পজিটিভ আসা পুলিশ সদস্যদের মধ্যে রয়েছেন ৭ জন সাব-ইন্সপেক্টর, ৫ অ্যাসিস্ট্যান্ট সাব-ইন্সপেক্টর, ৫ নায়েক, ৫০ কনস্টেবল এবং একজন ট্রাফিক সার্জেন্ট। তাদের বিরুদ্ধে মাদক গ্রহণ, মাদক বাণিজ্য, মাদক দিয়ে মানুষকে ফাঁসানো এবং উদ্ধারকৃত মাদকের পরিমাণ কম দেখানোর জন্য ঘুষ গ্রহণসহ বেশ কিছু অভিযোগ আনা হয়েছে।

  বাড়ল দোকানপাট-শপিং মল খোলা রাখার সময়

গত ২৬ সেপ্টেম্বর রাজধানীর মিরপুরে এক অনুষ্ঠানে ডিএমপি কমিশনার মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, মাদককাণ্ডে জড়িত পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণই জানান দেয়, মাদকের সঙ্গে সম্পৃক্ত কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না।