ধর্ষণে কিশোরীর ভূমিষ্ঠ সন্তানের দায়িত্ব নিলেন এসপি

ধর্ষণে কিশোরীর ভূমিষ্ঠ সন্তান

ছবি; আমাদের বাণী

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহ জেলা সংবাদদাতা;  জেলার পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামান এক কুমারি মা ও তার শিশু সন্তানের দেখভালের দায়িত্ব নিয়েছেন। তার হস্তক্ষেপে প্রতারক প্রেমিককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

ঝিনাইদহ সদর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতনদমন আইনে ওই কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০)  রাতে মামলা দায়ের করেছেন। এরপর অভিযুক্ত নাইমকে গ্রেপ্তার করা হয়।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার সাধুহাটি ইউনিয়নের পোতাহাটি নতুন পাড়া গ্রামের আনোয়ার হোসেনের কিশোর ছেলে নাইম একই এলাকার ৭ম শ্রেণির এক ছাত্রীর সঙ্গে প্রেমের সর্ম্পক গড়ে তোলে। তারা মেলামেশার এক পর্যায়ে কিশোরী গর্ভবতী হয়ে পড়ে। এরই মধ্যে ১১ ফেব্রুয়ারি স্থানীয় রাহেলা জেনারেল হাসপাতালে কিশোরীর পুত্রসন্তান ভূমিষ্ঠ হয়। তখন নাইম ওই সন্তানের পিতৃত্ব অস্বীকার করে। ওই কিশোর সন্তান নিয়ে অসহায় হয়ে পড়ে। বিচারের জন্য থানা পুলিশ ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের কাছে ধর্ণা দেয়। এর মধ্যে পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামান জানতে পেরে তিনি দ্রুত ওই কিশোরী বাড়িতে যান এবং খোজ খবর নেন এবং এই প্রতিবেদকের বলেন যতদিন এর সুরাহা না হয়, ততদিন ওই কিশোরী এবং তার সন্তানের ভরণ-পোষণের দায়িত্ব তিনি নিয়েছেন।

  ঠাকুরগাঁও‌য়ে গম ক্ষেত থেকে গরু ব্যবসায়ী‌র গলা কাটা লাশ উদ্ধার

শিশুটি কোনো অপরাধ করেনি জানিয়ে পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামান বলেন, ডিএনএ পরীক্ষার পর প্রমাণ হবে শিশুটির বাবা কে? আদালত এই বিষয়ে ব্যবস্থা নেবেন। নাইমের বাবা আনোয়ার হোসেন বলেন, তার ছেলে নির্দোষ। তাকে ফাঁসানের জন্য মামলা হয়েছে। তবে ডিএনএ পরীক্ষায় নাইম শিশুর বাবা প্রমাণ হলে তিনি তা মেনে নেবেন।

আমাদের বাণী ডট কম/২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০/সিএন


শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •