Shadow

নরসিংদীতে নতুন ২৩ জনসহ মোট ৩৫৫ জনের করোনা শনাক্ত

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মোঃ আবু তাহের, নরসিংদী জেলা সংবাদদাতা; জেলায়  প্রতিদিনই বাড়ছে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। আজ নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে আরও  ২৩জন। গত সোমবার (১৮ মে) পাঠানো ৭১টি নমুনায় নতুন আরো ২০ জন ও ১০০ শয্যা বিশিষ্ট জেলা হাসপাতাল থেকে আইইডিসিআর এ পাঠানো ০৬ টি নমুনার মধ্যে ০৩ জন নতুন,০৩ জন পুরনো করোনায় আক্রান্ত রোগী সনাক্ত হয়েছে।

সর্বশেষ আজ রাত ৯ টায় প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী বৃহস্পতিবার (২১ মে ) পর্যন্ত নতুন আক্রান্ত নরসিংদী সদর উপজেলার ২১জন, শিবপুর উপজেলায় ১জন, ও মনোহরদীতে-১জন

এ নিয়ে জেলায় সর্বমোট আক্রান্ত-৩৫৫জন ও সুস্থ্য হয়েছেন-১৬৬জন । আইসোলেশনে নতুন ২৩ জন সহ রয়েছেন ১৮৫জন। নরসিংদী জেলায় এ পর্যন্ত করোনা নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে সর্বমোট-২৩২৫ জনের। নরসিংদী জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য অনুযায়ী মোট করোনায় আক্রান্ত নরসিংদী সদর উপজেলায়-২৪২, সুস্থ্য-৮৯জন, শিবপুরে আক্রান্ত-২৭, সুস্থ্য-১৬, পলাশ উপজেলায় আক্রান্ত-১৮, সুস্থ্য-৮জন, মনেরহরদীতে আক্রান্ত-৮, সুস্থ্য-৫জন, বেলাব উপজেলায় মোট আক্রান্ত-২৭, সুস্থ্য-২৩জন ও রায়পুরা উপজেলায় আক্রান্ত-২৯, সুস্থ্য-২৫জন।

নরসিংদী স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য অনুযায়ী,  করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ৪জন, এছাড়া আরো ৪ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত হওয়া গেছে। এ নিয়ে মৃত্যুর সংখ্যা দাড়িয়েছে ৮জনে।

সোমবার (১৮ মে)বিকেলে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধিন অবস্থায় হাজী শরীফ হোসেন মুক্তার (৫৭) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। তিনি সদর উপজেলার মাধবদী নুরালাপুর গ্রামের বাসিন্দা। নরসিংদী সদর উপজেলা কুইক রেসপন্স টিমের সভাপতি ও সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো:শাহ আলম মিয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

করোনা আক্রান্ত হয়ে-সোমবার (১১ মে) সকালে মাধবদী এলাকার চাঁন মিয়া (৬৫) তার নিজ বাড়ীতে মৃত্যুবরণ করেন।
শুক্রবার (৮ মে) রাতে নরসিংদী শহরের বৌয়াকুড় মহল্লায় নিখিল (৫০) নামে এক ব্যাক্তি করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বরন করেন।

বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) রাতে পলাশ উপজেলার জিনারদী ইউনিয়নের মাঝের চর এলাকার নূর মোহাম্মদ (৫০)নিজ বাড়িতে মৃত্যুবরণ করেন।

বৃহস্পতিবার (২৩ এপ্রিল) নরসিংদী শহরের ভাগদী মহল্লার আমজাদ হোসেন (৪৮) সন্ধ্যা ৭টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় কুয়েত মৈত্রী হাসপাতাল এর আইসিউতে মৃত্যুবরন করেন।

এছাড়া সোমবার (১৮ মে) নরসিংদী সদর উপজেলার মাধবদী থানার মহিষাশুরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ডা. মো. শাহীনের স্ত্রী সাহেরা আক্তার (৪৩) শতভাগ করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করেন। তিনি এক সপ্তাহ ধরে জ্বর, ঠান্ডা,গলা ব্যাথা ও ডায়রিয়ায় ভুগছিলেন। বিষয়টি গোপন রেখে চেয়ারম্যান নিজেই তার স্ত্রীর চিকিৎসা করছিলেন। এরই মধ্যে সোমবার সকাল থেকে পাতলা পায়খানা ও শ্বাস কষ্ট শুরু হলে বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে তিনি মারা যান। নরসিংদী সদর উপজেলা কুইক রেসপন্স টিমের সভাপতি ও সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো:শাহ আলম মিয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তার তত্বাবধানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সন্ধায় লাশ দাফন করা হয়

  লামায় ইউপি চেয়ারম্যানের নির্দেশে গাছ কর্তনের অভিযোগ!

শনিবার (১৬ মে) রাতে নরসিংদী শহরের বৌয়াকুড় মহল্লার বলরাম দাস (৪৫) নামে একজন শতভাগ করোনা উপসর্গ নিয়ে নিজ বাড়ীতে মৃত্যুবরণ করেন। এ তথ্য নিশ্চত করেছেন নরসিংদী সদর উপজেলা কুইক রেসপন্স টিমের সভাপতি, সদর এসিল্যান্ড মো: শাহ আলম মিয়া।

বুধবার (১৩ মে) বেলাবো উপজেলার সররাবাদ হাজী বাড়ির আতাউর রহমান (কৃষি ব্যাংকের ম্যানেজার) করোনায় আক্রান্ত হয়ে ঢাকা কুয়েত মৈত্রি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।বিষয়টি নিশ্চিত করেন বেলাবো থানা পুলিশ।

শনিবার (১৮এপ্রিল) ঢাকার কুর্মিটোলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরন করেন আমির হোসেন। আমির হোসেন (৪৫) পাইকারচর ইউনিয়নের পুরানচর গ্রামের মৃত হানিফ প্রধান এর ছেলে । আমির হোসেন এর শরীরে করোনা উপসর্গ দেখা দিলে গত ১৭এপ্রিল জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে তিনি নিজ উদ্যোগে ঢাকা কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল ভর্তি হন। সেখানে পরীক্ষা করা হলে তার করোনা পজেটিভ রিজাল্ট আসে।

  • স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত হেলথ বুলেটিনের সর্বশেষ (২১ মে ২০২০) তথ্য অনুযায়ী, ত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাস শনাক্তে আরও ১০ হাজার ১৭৪টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় ১০ হাজার ২৬২টি নমুনা। এ নিয়ে দেশে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হলো দুই লাখ ১৪ হাজার ১১৪টি। নতুন নমুনা পরীক্ষায় আরও এক হাজার ৭৭৩ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ২৮ হাজার ৫১১ জন। আক্রান্তদের মধ্যে মারা গেছেন আরও ২২ জন। ফলে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৪০৮ জনে।
আমাদের বাণী ডট/২১  মে ২০২০/পিবিএ 

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •