Shadow

নারায়ণগঞ্জে করোনায় আক্রান্ত ৫২১৮ জনের ৩৫৭৪ জনই সুস্থ

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নারায়ণগঞ্জ সংবাদদাতা; জেলায় করোনায় আক্রান্ত ৫২১৮ জনের মধ্যে ৩৫৭৪ জন ইতোমধ্যেই সুস্থ হয়েছেন। এর মধ্যে মারা গেছেন ১১৪ জন আর এখনো আইসোলেশনে রয়েছেন ১৫৩০ জন।

আজ বৃহস্পতিবার (০২ জুলাই ২০২০) জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে। চলতি সপ্তাহে একেবারেই কমে এসেছে জেলা করোনা হাসপাতালে জরুরি বিভাগে চিকিৎসা নেওয়া রোগীর সংখ্যা। হাসপাতালে নতুন ভর্তিও একেবারে নেই বললেই চলে। আগের যারা ভর্তি হয়েছেন তারাও সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরছেন।

সর্বশেষ পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, জেলায় করোনা আক্রান্ত হিসেবে রয়েছেন ১৫৩০ জন। এদের প্রায় ৭০ ভাগই সুস্থতার পথে। মানুষের মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মানার প্রবণতা কিছুটা বাড়ায় আক্রান্তের সংখ্যা কমেছে জেলায়।

জেলা সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ইমতিয়াজ জানান, করোনা আক্রান্ত জেলায় এখন অনেক কমেছে। আমাদের পরীক্ষায় শনাক্তের হারের হিসাব এমনটাই বলছে। মানুষ কিছুটা সচেতন হয়েছে বলেই এটি সম্ভব হয়েছে। আমরা দীর্ঘদিন ধরেই অনেক আক্রান্ত হওয়ায় এখানে মানুষের মধ্যে কীভাবে চলাচল করতে হবে, কীভাবে স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে সেই ধারণা হয়েছে। আমাদের রূপগঞ্জ সদর ইউনিয়ন লকডাউন করে সেখানেও সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত শনাক্ত হলেও এখন সেটিও রেড জোন মুক্ত হবার পথে।

এদিকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এর করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত হেলথ বুলেটিনের সর্বশেষ (০১ জুলাই ২০২০) তথ্য অনুযায়ী,  গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৪১ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে মহামারি করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯)। ফলে ভাইরাসটিতে মোট ১৮৮৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে করোনায় আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৭৭৫ জন। এতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১ লাখ ৪৯ হাজার ২৫৮ । আজ নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৭  হাজার ৮৭৫ টি যা গতদিনে ছিল ১৮ হাজার ৪২৬ টি ।গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৪৮৪ জন এবং এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৬২ হাজার ১০২ জন। সুস্থতার হার ৪১.৬১% এবং মৃত্যুর হার ১.২৬ শতাংশ। বয়স বিশ্লেষণে জানা যায়, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে চারজন, ৪১-৫০ পাঁচজন, ৫১-৬০ ১২ জন, ৬১-৭০ ১১ জন, ৭১-৮০ সাতজন, ৮১-৯০ একজন এবং ১০০ বছরের একজন।

  নোয়াখালী: ২৪ ঘন্টায় শনাক্ত ৬০ জন, মোট ১০৬৯, মৃত্যু ৩০

আমাদের বাণী ডট কম/০১ জুলাই  ২০২০/পিপিএম

সৈয়দপুরের বিজ্ঞাপন

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •