Shadow

নোয়াখালীতে পুলিশ, ব্যাংকার এনজিও কর্মীসহ আরও ৪৬ জন আক্রান্ত

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নোয়াখালী সংবাদদাতা;  জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় নোয়াখালীতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন আরও ৪৬ জন। যার মধ্যে কয়েকজন পুলিশ সদস্য, ব্যাংকার, এনজিও কর্মী, ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ রয়েছে। এ নিয়ে উপজেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ২২৩৫ জন।

আজ শুক্রবার (০৩ জুলাই ২০২০)  দুপুরে নোয়াখালী সিভিল সার্জন ডা. মাসুম ইফতেখার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

হাতিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ও করোনা ফোকাল পার্সন ডা. মো. নিজাম উদ্দিন মিজান বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় দ্বীপ উপজেলায় নতুন করে ১৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে নয়জন পুলিশ সদস্য ও চারজন ভিন্ন পেশার লোক রয়েছেন। আক্রান্তদের শারীরিক অস্থার প্রেক্ষিতে আইসোলেশনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। লকডাউন করা হয়েছে আক্রান্তদের বাড়ি।

সিভিল সার্জন ডা. মাসুম ইফতেখার বলেন, নতুন আক্রান্তদের মধ্যে সদরে ৩, সুবর্ণচরে ৫, হাতিয়ায় ১৩, বেগমগঞ্জে ১০, সেনবাগে ১, কোম্পানীগঞ্জে ৪ ও কবিরহাটে ১০ জন রোগী রয়েছে। যার মধ্যে সুস্থ্য হয়েছেন ১০৬৮ ও আইসোলেশনে রয়েছেন ১১২২ জন। জেলায় সর্বমোট আক্রান্ত ২২৩৫ জন। এদের মধ্যে সদরে ৬৮০, সুবর্ণচরে ১৩৯, হাতিয়া ৩৭, বেগমগঞ্জে ৬৬৫, সোনাইমুড়ীতে ১১৮, চাটখিলে ১৪১, সেনবাগে ১০২, কোম্পানীগঞ্জে ১১৭ ও কবিরহাটে ২৩৬ জন।

এদিকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এর করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত হেলথ বুলেটিনের সর্বশেষ (০৩ জুলাই ২০২০) তথ্য অনুযায়ী,  গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৪২ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে মহামারি করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯)। ফলে ভাইরাসটিতে মোট ১৯৬৮  জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে করোনায় আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ৩ হাজার ১১৪  জন। এতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১ লাখ ৫৬ হাজার ৩৯১  । আজ নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৪  হাজার ৬৫০  টি যা গতদিনে ছিল ১৮  হাজার ৩৬২ টি । ৬৩টি ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১৪ হাজার ৬৫০টি। শনাক্তের হার ২১.২৬ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৬০৬ জন এবং এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৬৮ হাজার ৪৮ জন। সুস্থতার হার ৪৩.৫১% এবং মৃত্যুর হার ১.২৬ শতাংশ। বয়স বিশ্লেষণে জানা যায়, ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে একজন, ২১-৩০ তিনজন, ৩১-৪০ একজন, ৪১-৫০ পাঁচজন, ৫১-৬০ ১১ জন, ৬১-৭০ ১১ জন, ৭১-৮০ সাতজন, এবং ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে তিনজন। মারা যাওয়া ব্যক্তিদের সম্পর্কে জানানো হয়, পুরুষ ৩২ জন ও নারী ১০ জন। এদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে মারা গেছেন ১৮ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ১০ জন, রাজশাহী তিনজন, খুলনা বিভাগে তিনজন, রংপুর বিভাগে চারজন, বরিশাল বিভাগে একজন ও সিলেট বিভাগে তিনজন। হাসপাতালে মারা গেছেন ৩১ জন এবং বাড়িতে ১১ জন। ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে নেয়া হয়েছে ৮৭৭ জনকে। আইসোলেশন থেকে ছাড় দেয়া হয়েছে ৬৮৭ জনকে।

  রাজবাড়ী অনির্দিষ্টকালের জন্য লকডাউন

আমাদের বাণী ডট কম/০৩  জুলাই  ২০২০/পিপিএম

সৈয়দপুরের বিজ্ঞাপন

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •