লালমনিরহাটে ধর্ষণ

মাসুদ বাবু, লালমনিরহাট জেলা সংবাদদাতা; জেলার  পাটগ্রাম উপজেলায় ধর্ষণের শিকার ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রী তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা। পুলিশ এই ধর্ষণের অভিযোগে মঙ্গলবার রাতে মোক্তার উদ্দিন ওরফে মোক্তার আলী এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে।

গত মঙ্গলবার (২৬ মে ২০২০)  রাতে শিশুর বাবা বাদী হয়ে পাটগ্রাম থানায় মোক্তার উদ্দিন ওরফে মোক্তার আলীকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় মোক্তারকে গ্রেফতার দেখিয়ে গত বুধবার দুপুরে লালমনিরহাট আদালতে সোপর্দ করা হয়। আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে প্রেরণ করেছেন।ধর্ষক মোক্তার আলী লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলর পাটগ্রাম ইউনিয়নের টেপুরগারী এলাকার আবুল খায়েরের ছেলে। ওই শিশু শিক্ষার্থীকে পুলিশ হেফাজতে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য বুধবার দুপুরে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

  মাস্ক ব্যবহারে উদ্ধুদ্ধকরণ কার্যক্রমের উদ্ভোধন করলেন মন্ত্রী বীর বাহাদুর

শিশুটি জানায়, ফেব্রুয়ারি মাস থেকে তাকে ধর্ষণ করে আসছিল প্রতিবেশী দাদা মোক্তার। ঘন ঘন বমি ও খেতে না পারার কারণ খুঁজতে গিয়ে দাদি বুঝতে পারেন শিশুটি অন্তঃসত্ত্বা।

পাটগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুমন কুমার মোহন্ত বলেন, ‘শিশুটি ৩ মাসের অন্তঃসত্ত্বা। প্রাথমিক পরীক্ষায় নিশ্চিত হওয়ার পর তার বাবার অভিযোগটি মামলা হিসেবে রেকর্ড করা হয়েছে। আসামিকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। শিশুটির শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য লালমনিরহাট সদর ১০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।’তিনি আরও বলেন, ‘প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামি মোক্তার ওই শিশুটিকে ৭ দিন ধর্ষণের কথা জানিয়েছে।

আমাদের বাণী ডট কম/২৮  মে ২০২০/সিসিপি