বাংলাদেশ সরকার

বয়স ৬৫ বছর পেরুলেই অবসরে যাওয়া সরকারি চাকরিজীবীরা ৫০ ভাগ বেশি পেনশন পাবেন। একই সাথে তারা চালু থাকা মাসে আড়াই হাজার টাকা করে চিকিৎসা ভাতাও পাবেন। ২০১৫ সালে নতুন বেতন স্কেল কার্যকর করার পর ৬৫ বছরের বেশি বয়সী পেনশনারদের পেনশন ও চিকিৎসা ভাতা নিয়ে সৃষ্ট জটিলতার সুরাহা করে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। গত সপ্তাহে এ বিষয়ে এক প্রজ্ঞাপন জারি করেছে অর্থ মন্ত্রণালয়।

অর্থ বিভাগ বলেছে, পেনশনভোগীর বয়স যে তারিখে ৬৫ বছর ১ দিন পূর্ণ হবে, সে দিন থেকে ২০১৫ সালের ৩০ জুনে প্রাপ্ত নিট পেনশনের ভিত্তিতে তাদের পেনশন ৫০ শতাংশ বৃদ্ধি পাবে। একই সাথে আড়াই হাজার টাকা হারে মাসিক চিকিৎসা ভাতা পাবেন তারা।

তবে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়, ২০১৫ সালের ১ জুলাইয়ের আগে যাদের বয়স ৬৫ বছরের কম ছিল, তাদের পেনশনের পরিমাণ প্রথমে ২০১৫ সালের ৩০ জুনে প্রাপ্ত নিট পেনশনের ওপর ২০১৫ সালের ১ জুলাই ৪০ শতাংশ বৃদ্ধি পাবে। এতে বলা হয়, একই সাথে যে তারিখে তাদের বয়স ৬৫ বছর ১ দিন পূর্ণ হবে, সে দিন থেকে ২০১৫ সালের ৩০ জুনে প্রাপ্ত নিট পেনশনের ভিত্তিতে অবশিষ্ট ১০ শতাংশ বৃদ্ধি প্রদেয় হবে। মাসিক নিট পেনশনপ্রাপ্ত অবসরভোগী ও আজীবন পারিবারিক পেনশনভোগীদের বয়স ৬৫ বছর ১ দিন পূর্ণ হওয়ার দিন থেকে তারা আড়াই হাজার টাকা হারে মাসিক চিকিৎসা ভাতা পাবেন।

  কোন হয়রানী ছাড়া ৭ দিনেই মিলবে স্মার্ট জাতীয় পরিচয় পত্র

এ ছাড়া যেসব পেনশনার প্রতি বছর ১ জুলাই নিট পেনশনের ওপর ৫ শতাংশ ইনক্রিমেন্ট (বার্ষিক বেতন বৃদ্ধি) পাওয়ার পর একই বছরে ৬৫ বছর ঊর্ধ্ব বয়সে উপনীত হবেন, তাদের ক্ষেত্রে একই বছরে অবশিষ্ট ১০ শতাংশ বৃদ্ধিজনিত কারণে দুইবার নিট পেনশন বৃদ্ধির অপশন অনলাইনে চালুর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়। একইভাবে ওই পেনশনার একই বছরে যে তারিখে ৬৫ বছরের ঊর্ধ্ব বয়সে উপনীত হবেন, সেই তারিখ থেকে চিকিৎসা ভাতা মাসিক দুই হাজার টাকা হারে প্রাপ্তির অপশন অনলাইনে চালু করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *