Shadow

প্রাথমিকের প্রধান শিক্ষককে কুপিয়ে যখম

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার দড়িখশিল্লা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. মফিদুল ইসলামকে কুপিয়ে আহত করেছে চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনায় দুজনকে আটক করেছে পুলিশ।

গত শনিবার (২১ সেপ্টেম্বর) সকালে নাগবাড়ী ইউনিয়নের গান্ধিনা বটতলায় তিনি সন্ত্রাসী হামলার শিকার হন। তাকে গুরুতর আহতাবস্থায় টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত মো. মফিদুল ইসলাম উপজেলার গান্ধিনা গ্রামের মৃত আব্দুল জলিল মাস্টারের ছেলে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে নাগবাড়ী ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ইমান আলী ও বিএনপি কর্মী তুহীন আলীকে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে।

স্থানীয়রা জানায়, জান্নাতুল ফেরদাউস কওমী মাদ্রাসা কমিটি নিয়ে গান্ধিনা গ্রামের দুই পক্ষের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। ওই বিরোধের জের ধরে উভয়পক্ষের মধ্যে মামলা-হামলার ঘটনাও ইতোপূর্বে ঘটেছে। একই ঘটনার জের ধরে ওই ঘটনা ঘটে থাকতে পারে।

টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের বিছানায় কাতরস্বরে আহত প্রধান শিক্ষক মো. মফিদুল ইসলাম জানান, শনিবার সকালে তিনি বাড়ি থেকে দড়িখশিল্লা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে গান্ধিনা বটতলা নামক স্থানে পৌঁছলে একটি মোটরসাইকেলে তিন ব্যক্তি তার পথরোধ করে। এ সময় নাগবাড়ী ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি মো. ইমান আলীর নির্দেশে বাহাদুর ও আন্তাজ আলী তাকে উপর্যুপরি কুপিয়ে আহত করে রাস্তায় ফেলে চলে যায়। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে আত্মীয়দের খবর দিলে তাকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

  জমে উঠেছে বগুড়ায় ঈদের কেনাকাটা

বর্তমানে তিনি টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের ৬নং ওয়ার্ডের পেয়িংবেডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ বিষয়ে মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছে বলে আহতের ছোটভাই মুসফিকুল ইসলাম জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে কালিহাতী থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) হাসান আল মামুন জানান, এ ঘটনাটি আমরা জেনেছি। এখন পর্যন্ত কেউ মামলা দায়ের করেনি। তবে ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে ইমান আলী ও তুহীন আলী নামে দু’জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।


শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *