করোনা

ফেনী সংবাদদাতা;  জেলায় শেষ ২৪ ঘণ্টায় ৭৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এখন পর্যন্ত এ জেলায় এটিই একদিনে সর্বোচ্চ করোনা শনাক্তের রেকর্ড। এ নিয়ে জেলায় করোনা মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ৭৪৯ জন।

আজ বৃহস্পতিবার (২৫ জুন ২০২০)  জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় এ তথ্য জানায়।

  • জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় নোয়াখালীর আবদুল মালেক উকিল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর ল্যাব থেকে ফেনীর ৩৯২টি নমুনা পরীক্ষার ফল এসেছে। এর মধ্যে ৮০ জনের করোনা পজেটিভ ধরা পড়েছে। নতুন শনাক্তদের মধ্যে সদর উপজেলার ৩১ জন, দাগনভূঞার ২০ জন, সোনাগাজীর ১২ জন, ছাগলনাইয়ার ১০ জন, ফুলগাজী ও পরশুরামে ২ জন করে ৪ জন ও অন্যান্য ১ জন রয়েছেন। এছাড়া আগে শনাক্ত ২ ব্যক্তির নমুনা পরীক্ষায় পুনরায় করোনা পজেটিভ এসেছে।

দাগনভূঞা উপজেলায় শনাক্ত হওয়া ২০ জনের মধ্যে পৌরসভার ১১ জন, রামনগর এলাকার ৪ জন, জায়লস্করের ৩ জন এবং পূর্বচন্দ্রপুর ও সদর ইউনিয়নের ১ জন করে আছেন। এদের মধ্যে ৪ জন পুলিশ সদস্য।

  • এদিকে সোনাগাজীতে নতুন শনাক্তদের মধ্যে ৩ পুলিশ কর্মকর্তাও আছেন। তাদের মধ্যে একজন হলেন সোনাগাজী সার্কেলের ওসি। বাকি দুজন মডেল থানার সাব-ইন্সপেক্টর। এছাড়া এ উপজেলায় নতুন শনাক্তদের মধ্যে এক ব্যাংক কর্মকর্তা ও এক পুলিশ কর্মকর্তার স্ত্রীও রয়েছেন। এর বাইরে ২ জন মতিগঞ্জ, ২ জন বগাদানা, ১ জন তুলাতুলী, ১ জন নবাবপুর ইউনিয়নের নাজিরপুর এলাকার বাসিন্দা।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ আরও জানায়, সম্প্রতি উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া উপজেলার আমিরাবাদ ইউনিয়নের সোনাপুরের এক ব্যক্তির নমুনা পরীক্ষায় করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে।

  • এদিকে ছাগলনাইয়ায় শেষ ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত ১০ জনের মধ্যে ২ জনের বাড়ি মটুয়া এলাকায়। বাকিরা পশ্চিম ছাগলনাইয়া, দক্ষিণ কুহুমা, বাংলাবাজার, বাঁশপাড়া, দক্ষিণ সতের, পূর্ব ছাগলনাইয়া, পূর্ব বাথানীয়া এলাকার। অপর একজন ফুলগাজী থেকে গিয়ে নমুনা দিয়ে পজেটিভ শনাক্ত হয়েছেন।
  গাইবান্ধায় করোনা চিকিৎসায় প্রস্তুত ১শ’টি আইসোলেসন কেন্দ্র

পরশুরাম উপজেলার নতুন শনাক্ত ২ জনের বাড়ি পৌরসভার কোলাপাড়া ও চিথলিয়া ইউনিয়নে। কোলাপাড়ার বাসিন্দা স্থানীয় একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিক।

এছাড়া ফুলগাজী উপজেলায় শনাক্ত ১ জন পুলিশের সাব-ইন্সপেক্টর, অন্যজন দরবারপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা।

এদিকে বাংলাদেশের স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এর করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত হেলথ বুলেটিনের সর্বশেষ (২৫ জুন ২০২০) তথ্য অনুযায়ী, দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩৯ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে মহামারি করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯)। ফলে ভাইরাসটিতে মোট ৬১৬২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে করোনায় আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৯৪৬ জন। এতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১ লাখ ২৬ হাজার ৫৫৩ ।  গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১৭ হাজার ৯৯৯টি। শনাক্তের হার ২১.৯২ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৮২৯ জন এবং এ পর্যন্ত সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ৫১ হাজার ৪৯৫ জন। সুস্থতার হার ৪০.৬৭% এবং মৃত্যুর হার ১.২৮ শতাংশ। মারা যাওয়া ব্যক্তিদের সম্পর্কে জানানো হয়, পুরুষ ৩২ জন ও নারী ৭ জন। বয়স বিশ্লেষণে জানা যায়, ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে দুইজন, ৩১-৪০ একজন, ৪১-৫০ সাতজন, ৫১-৬০ ৯ জন, ৬১-৭০ ১২ জন এবং ৭১-৮০ সাতজন এবং ৯১ থেকে ১০০ বছরের মধ্যে একজন। হাসপাতালে মারা গেছেন ২৮ জন এবং বাড়িতে ১১ জন। ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে নেয়া হয়েছে ৬৪৫ জনকে। আইসোলেশন থেকে ছাড় দেয়া হয়েছে ৩৭৪ জনকে।

আমাদের বাণী ডট কম/২৫ জুন ২০২০/পিপিএম