ডেস্ক রিপোর্ট, ঢাকাঃ করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে বাংলাদেশি নাগরিকদের সিঙ্গাপুর ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। আজ শুক্রবার দেশটির আন্তঃমন্ত্রণালয় কোভিড-১৯ টাস্কফোর্স এমন সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে। সিঙ্গাপুরভিত্তিক চ্যানেল নিউজ এশিয়ার প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

বাংলাদেশ ছাড়াও প্রতিবেশী দেশ নেপাল, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে সিঙ্গাপুর। ভারতে করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতির অবনতি এবং এর প্রতিবেশী দেশগুলোতে ভাইরাসটির সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার কারণে এমন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। চার দেশের ওপর সিঙ্গাপুরের এ ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আগামী রোববার (২ মে) থেকে কার্যকর হবে।

সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল ও শ্রীলংকা থেকে কেউ সিঙ্গাপুরে ঢুকতে পারবেন না। এসব দেশে যারা গত ১৪ দিনে ভ্রমণ করেছেন তারাও ঢুকতে পারবেন না। এমনকি যারা ট্রানজিট ভিসায় ঢোকার অপেক্ষায় আছেন এবং এই চার দেশ ভ্রমণ করেছেন তারাও রোববার থেকে সিঙ্গাপুরে ঢুকতে পারবেন না।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘দীর্ঘমেয়াদি পাস হোল্ডার’ ও ‘শর্ট টার্ম’ যেসব ভ্রমণকারী বিগত ১৪ দিন এসব দেশে অবস্থান করেছেন বা ভ্রমণ করেছেন তারা সরাসরি কিংবা ট্রানজিট হয়ে সিঙ্গাপুরে ঢুকতে পারবেন না।

  ঘূর্ণিঝড় আম্ফান: বরগুনায় প্লাবিত ২০ গ্রাম, তলিয়ে গেছে বাড়িঘর-ফসল

দেশটির আন্তঃমন্ত্রণালয় কোভিড-১৯ টাস্কফোর্সের উপপ্রধান লরেন্স অং জানিয়েছেন, আগে থেকে সিঙ্গাপুর কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে যারা সিঙ্গাপুরে ঢোকার আগাম অনুমতি নিয়েছেন, তাদের ক্ষেত্রেও রোববার থেকে এই ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে। অর্থাৎ অনুমতি থাকার পরও ঢুকতে দেওয়া হবে না।

এ ছাড়া সম্প্রতি এই চার দেশ সফর করে এসে এখন যারা সিঙ্গাপুরে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন এবং আগামী ৩ মে যাদের কোয়ারেন্টিনের মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা রয়েছে তাদেরকে সরকার কর্তৃক নির্ধারিত কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে আরও ৭ দিন থাকতে হবে। এদিকে যারা নিষেধাজ্ঞা কার্যকরের আগেই সিঙ্গাপুরে প্রবেশ করবেন, তাদেরকে সেখানে যাওয়ার পরপরই একবার, পরে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনের শেষ দিনে একবার এবং ২১ দিনের কোয়ারেন্টিন শেষে আরও একবার পিসিআর টেস্ট করাতে হবে।

আমাদেরবাণী/মৃধা