Shadow

বাংলায় অনার্স-মাস্টার্স করে পদার্থ-রসায়নে ক্লাস নেওয়া সেই শিক্ষিকা বরখাস্ত

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

অবশেষে বরখাস্ত হলেন মাগুরা সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের পদার্থ-রসায়ন বিষয়ের শিক্ষিকা আইরিন সুলতানা। তিনি ওই কলেজের অধ্যক্ষ আইয়ূব আলীর মেয়ে। বাবা অধ্যক্ষ হওয়ার সুবাদে বাংলায় অনার্স (স্নাতক) ও মাস্টার্স (স্নাতকোত্তর) সম্পন্ন করে পদার্থ ও রসায়ন বিষয়ের শিক্ষক হন আইরিন সুলতানা।

একই সঙ্গে কলেজের অধ্যক্ষ আইয়ূব আলীর বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহার এবং অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগের প্রমাণ পাওয়া যায়। তবে অধ্যক্ষ আইয়ূব আলীর বিরুদ্ধে এখনো কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।

কলেজের এগ্রো মেশিনারি বিভাগের জুনিয়র ইন্সট্রাক্টর মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, সারাদেশের মতো এই প্রতিষ্ঠানেও টেকনিক্যাল বিষয়গুলোতে প্রয়োজনের তুলনায় শিক্ষক সংকট রয়েছে। এ অবস্থায় নন-টেক বিষয়ের বাংলা বিভাগে শিক্ষক সংকট না থাকা সত্ত্বেও অধ্যক্ষ আইয়ূব আলী নিজের মেয়েকে নিয়োগ দিয়েছিলেন।

তিনি বলেন, দীর্ঘদিন ধরে টেকনিক্যাল বিষয়গুলোর ক্লাস নিচ্ছিলেন আইরিন সুলতানা। তার অভিজ্ঞতা না থাকায় পদার্থ-রসায়ন বিষয়ের ক্লাস নেয়ায় ফল বিপর্যয় ঘটেছে শিক্ষার্থীদের। এ অবস্থায় আইরিন সুলতানাকে বরখাস্ত করা হয়েছে। একাডেমিক কাউন্সিল সভায় টেকনিক্যাল বিষয়ের শিক্ষক সংকট কমাতে বিষয়ভিত্তিক অতিথি শিক্ষক নিয়োগের প্রাথমিক সিদ্ধান্ত হয়েছে।

  কুষ্টিয়ায় এসএসসি পরীক্ষার্থীর আত্মহত্যা

শিক্ষক সংকট কমাতে কি পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে, বিষয়ভিত্তিক শিক্ষক চেয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে লিখিত আবেদন করা হয়েছে কিনা- জানতে চাইলে কলেজের অধ্যক্ষ আইয়ূব আলী বলেন, যেসব বিষয়ে পাঠদান হয় না অথচ কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর সেসব বিষয়ের শিক্ষক নিয়োগ দিয়ে রেখেছে ওসব শিক্ষকের তালিকা করে অধিদপ্তরে পাঠানো হবে। সেই সঙ্গে বিষয়ভিত্তিক শিক্ষক চেয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করা হবে।

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *