Shadow

বেহাল দশায় বগুড়া সদর খাদ্য গুদাম: ১০ বছরেও মেটেনি জলাবদ্ধতার সংকট

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এস এম রহমান শিহাব, নিজস্ব সংবাদদাতা, বগুড়া; বেহাল দশায় রয়েছে বগুড়া সদর খাদ্য গুদাম। সাড়ে ৪ একর আয়তন ও সাত হাজার মেট্রিকটন ধারণা ক্ষমতাসম্পন্ন গুদামটিতে সংরক্ষণ করা হয় সরকার নির্ধারিত খাদ্য শস্য(ধান, চাল)। ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা থেকে নিরাপত্তা প্রহরী মিলিয়ে কর্মরত আছেন ১২ জন। তবে জরাজীর্ণ পরিস্থিতি যেন পেছন ছাড়ছে না সরকারি এই স্থাপনার।

কিছুদিন আগেও ভেঙ্গে পড়া নিরাপত্তা প্রাচীর সংরক্ষণ শেষ হলো, চলছে যোগাযোগ সড়ক মেরামতের কাজ। তবে চরম ভোগান্তিতে পরতে হয় বর্ষা মৌসুমে বা যেকোনো বৃষ্টি পরিস্থিতিতে। এ যেন এক সাধারণ নিয়ম আর স্বাভাবিক যাপনে পরিণত হয়েছে বগুড়া সদর খাদ্য গুদামের জন্য।

 বগুড়া সদর খাদ্য গুদাম

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, স্থাপনাটির ভিতরে স্থান ভেদে হাটু পর্যন্ত পানি জমে আছে। ৪ ঘন্টা সময় অতিবাহিত হবার পরেও পানি অপসারণের মাত্রা এতটাই সামান্য যা চোখে পড়ার মতো না।

দীর্ঘ সময় জলাবদ্ধতা স্থাপনাটির কার্যক্রম যেমন শিথিল করে তোলে, তেমন নাজুক ও ক্ষয়ের দিকে নিয়ে যায় অবকাঠামোগুলোকে। দীর্ঘ সময় স্যাঁতসেঁতে থাকার কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হয় সরকারি মজুদের খাদ্যশস্য।

জানতে চাইলে গুদামে কর্মরত সহকারী উপ-খাদ্য পরিদর্শক মোঃ কুদরত-ই-আযম সুমন সীমার ভিতরে আবাসনে বসবাস করা পরিবারগুলোর সাপ, মশাসহ নানান কীটপতঙ্গে বিড়ম্বনার কথা উল্লেখ করেন।

এ প্রসঙ্গে সদর খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ হাফিজুর রহমান বলেন, নিয়মতান্ত্রিক ভাবে বেশ কয়েক দফা বিধিব্যবস্থা নেয়ার জন্য চিঠি প্রেরণ করা হলেও কোন প্রতিউত্তর পাওয়া যায় নি।

  দুর্গাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আকস্মিক পরিদর্শনে এমপি ডাঃ মনসুর

জলাবদ্ধতার সমাধান বিষয়ে বগুড়া সদর উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মো: মনিরুল হক’রসাথে কথা বলে জানা যায়, “খাদ্য বিভাগ, বগুড়া পৌরসভাসহ প্রয়োজনীয় সকল জায়গায় সমাধানের জন্য বেশ কয়েকদফা অবহিত করা হয়েছে। পানি নিষ্কাশনের সমস্যার প্রধান কারণ হচ্ছে দু’পাশের উঁচু সড়ক, যা পৌর কর্তৃপক্ষের আওতায় পরে। খাদ্য বিভাগ তার নিজ সীমানার বাহিনীরে কোন কিছু করার ইখতিয়ার রাখে না, স্থানীয় প্রশাসন জরুরি ভিত্তিতে ব্যবস্থা গ্রহণ করলেই দ্রুত সমাধান সম্ভব। এবং দ্রুত সমাধান না করা হলে রাষ্ট্র অনেকাংশে ক্ষতিগ্রস্ত হবার সম্ভাবনা রয়েছে”।

জানা যায়, একই পরিস্থিতি বগুড়ার আরো বেশ কিছু খাদ্য গুদামের।

আমাদের বাণী ডট/২১  মে ২০২০/পিবিএ 

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •