ডেস্ক রিপোর্ট, ঢাকাঃ  ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের আয়োজনে দলের ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক শেখ মো. আজাহারের উদ্যোগে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণে হরিলুটের ঘটনা ঘটেছে। এতে করে যাদেরকে আড়াই ঘণ্টা বসিয়ে রাখা হয়, তাদের অধিকাংশই ঈদ উপহার পায়নি। দৌড়ঝাপ করে যে-যার মতো করে ত্রাণ নিয়ে যায়। আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে প্রাঙ্গণে এ ঘটনা ঘটে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণের উদ্যোগ গ্রহণ করে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ। আজ বেলা সাড়ে ১১টায় ওই অনুষ্ঠান শুরু হওয়ার কথা থাকলেও ১০টা থেকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের বসিয়ে রাখা হয়। আয়োজনে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের ৩০ জন নেতা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে, করোনার সংক্রমণের ঝুঁকি, অন্যদিকে প্রচণ্ড গরমের মধ্যে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের দীর্ঘ আড়াই ঘণ্টা বসিয়ে রাখে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ। দুপুর দেড়টার দিকে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি এবং বিশেষ অতিথিদের বক্তব্যে শেষ হয়। এরপর শুরু হয় সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ। কিন্তু ঘটে উল্টো ঘটনা। সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ব্যাপক বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হয় সভাস্থলে।

  ফখরুলের শপথ না নেওয়ার কারণ জানালেন হানিফ

এ সময় দেখা যায়, ঈদ উপহার বিতরণের জন্য যে সকল সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের বসিয়ে রাখা হয়েছিল, তারা উপহার সামগ্রী পায়নি। উপহার সামগ্রী বিতরণ শুরু হলে আশপাশে থাকা রিকশাচালক, ছিন্নমূল ও পথচারীরা এসে বিশৃঙ্খলা তৈরি করে। এ সময় সুষ্ঠু বন্টনে ব্যর্থ হন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীল নেতারা। ফলে দীর্ঘ দুই ঘণ্টা অপেক্ষার পরও ঈদের উপহার সামগ্রী থেকে বঞ্চিত হন সুবিধাবঞ্চিত শিশুরা।

সুবিধাবঞ্চিত কয়েকজন শিশু জানায়, সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত রোদের মধ্যে বসেছিল তারা। ঈদের জন্য কিছু উপহারের আশায় বসে থেকেও সেটা তারা পায়নি। শুধু কষ্ট করে রোদের মধ্যে অপেক্ষা করেছে তারা।

আমাদেরবাণী/মৃধা