মূলে আঘাত না করলে সুপ্রিম কোর্টের দুর্নীতি দূর হবে না বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন। বুধবার (৭ অক্টোবর) প্রয়াত অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম স্মরণে আয়োজিত এক শোকসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

আইন, মানবাধিকার ও সংবিধান বিষয়ক সাংবাদিকদের সংগঠন ল’ রিপোর্টার্স ফোরামের (এলআরএফ) আয়োজনে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির শহীদ শফিউর রহমান মিলনায়তনে এ শোকসভা অনুষ্ঠিত হয়।

নারী নির্যাতনের বিষয়ে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বলেন, দেশে যেভাবে নারী নির্যাতনের ঘটনা ঘটছে, এতে সরকারও বিব্রত।

প্রয়াত অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমকে স্মরণ করে প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘তার একটা সবচেয়ে বড় কথা ছিল, বিচার অঙ্গনে যত অনিয়ম আছে এগুলো দূর করতে হবে। তিনি আমাকে পরামর্শ দিয়ে বলেছিলেন, সেন্ট্রাল ফাইলিংয়ের ব্যবস্থা করেন। এটা যদি করেন তাহলে কোর্টের ৫০ শতাংশ অনিয়ম দূর হয়ে যাবে। আমি বারের (সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির) নেতৃবৃন্দকে বলেছি, আপনারা যদি সেন্ট্রাল ফাইলিংয়ে আসেন তাহলে বারের যে অনিয়ম আছে তার ৫০ শতাংশ চলে যাবে। কিন্তু বারের থেকে বলেলো সেন্ট্রাল ফাইলিং হবে না। আমরা (বার) আমাদের পছন্দ অনুযায়ী কোর্ট নির্বাচন করবো।’

  বদলি আদেশ অমান্য করলে বেতন বন্ধ

ফোরামের সভাপতি মো. মাশহুদুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত শোক সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে আলোচনা করেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম, আপিল বিভাগের বিচারপতি ওবায়দুল হাসান, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী, আপিল বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি এ এইচ এম শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক, হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম, বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন সেলিম।

আরও উপস্থিত ছিলেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি এএম আমিন উদ্দিন ও সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল, অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল মুরাদ রেজা, আইনজীবী কে এম সাইফুদ্দিন, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাবেক সভাপতি ইলিয়াস হোসেন, ল’ রিপোর্টার্স ফোরামের সাবেক সহ-সভাপতি শামীমা আক্তার, সাবেক সভাপতি আশুতোষ সরকার ও অ্যাটর্নি জেনারেলের মাহবুবে আলমের ছেলে সুমন মাহবুব।

গত ২৭ সেপ্টেম্বর ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম (৭১) ইন্তেকাল করেন। সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি প্রাঙ্গণে জানাজা শেষে মরদেহ মিরপুরের শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে দাফন করা হয়।

আমাদের বাণী ডট কম/৮ অক্টোবর ২০২০/পিপিএম