Shadow

মৃত্যুর পাঁচ দিন পর আনসার কর্মকর্তার করোনা পজিটিভ

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ডেস্ক রিপোর্ট, ঢাকা; করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর এক সহকারী জেলা কমান্ড্যান্টের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে বাহিনীটির এক কর্মকর্তাসহ চারজন সদস্য করোনায় মারা গেলেন।

আজ বৃহস্পতিবার (১৬ জুলাই ২০২০)  আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর উপপরিচালক (যোগাযোগ) মেহেনাজ তাবাসসুম রেবিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘মারা যাওয়া ওই কর্মকর্তার নাম মোহাম্মদ মিজানুর রহমান। গত ১১ জুলাইয়ের করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন তিনি। এরপর তার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছিল। আজ ১৬ জুলাই তার করোনা রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে।’

আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী সূত্রে জানা যায়, মোহাম্মদ মিজানুর রহমান ২০০৫ সালের ১০ নভেম্বর বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীতে সার্কেল অ্যাডজুট্যান্ট পদে যোগদান করেন। ২০১৯ সালের ১৯ আগস্ট তিনি সহকারী পরিচালক পদে পদোন্নতি পান।

তিনি স্ত্রী ও এক ছেলেসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। মৃত্যুবরণকারী সহকারী জেলা কমান্ড্যান্ট মোহাম্মদ মিজানুর রহমানের বাড়ি বরিশাল জেলার কোতোয়ালী থানার বাঘিয়া গ্রামে। মৃত্যুর আগে মিজানুর রহমান অনেক গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন।

মেহেনাজ তাবাসসুম রেবিন জানান, মৃত্যুর আগে মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বাগেরহাট জেলার সহকারী জেলা কমান্ড্যান্ট হিসেবে কর্মরত ছিলেন। বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর মহাপরিচালক মেজর জেনারেল কাজী শরীফ কায়কোবাদ সহকারী জেলা কমান্ড্যান্ট মিজানুর রহমানের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন।

তিনি আরও জানান, এ বাহিনী একজন চৌকস কর্মকর্তা হারাল। মহাপরিচালকের নির্দেশে সরকারি নির্দেশনা অনুসরণ করে মোহাম্মদ মিজানুর রহমানকে তার গ্রামের বাড়ি বরিশালে দাফন করা হয়।

মহাপরিচালকের পক্ষে বরিশাল জেলার জেলা কমান্ড্যান্ট সৈয়দ ইফতেহার আলী স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের জারিকৃত প্রটোকল অনুযায়ী মিজানুর রহমানের দাফন কাজ সম্পন্ন করেন।

উল্লেখ্য, ১৬ জুলাই পর্যন্ত আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন মোট ৮৮৩ জন। আর সুস্থ হয়েছেন ৪৮১ জন।

এদিকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত অনলাইন স্বাস্থ্য বুলেটিনের সর্বশেষ (১৬ জুলাই ২০২০)  দেশে করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ সময়ে আক্রান্ত হয়েছেন ২  হাজার ৭৩৩ জন। এ নিয়ে দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ লাখ ৯৬ হাজার ৩২৩ জনে আর মোট মারা গেছেন ২ হাজার ৪৯৬ জন। ‘আমরা গত ২৪ ঘণ্টায় ৮০টি পরীক্ষাগার থেকে নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ১৩ হাজার ৫৪৮টি। আর নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১২ হাজার ৮৮৯টি। মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৯ লাখ ৯৩ হাজার ২৯১টি। ২৪ ঘণ্টায় এই সংগৃহীত নমুনা থেকে শনাক্ত রোগী পেয়েছি ২ হাজার ৭৩৩ জন। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২১ দশমিক ২০ শতাংশ। এ পর্যন্ত শনাক্ত ১ লাখ ৯৬ হাজার ৩২৩ জন। শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ৭৬ শতাংশ।’  ‘২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছে ১ হাজার ৯৪০ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছে ১ লাখ ৬ হাজার ৯৬৩ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৫৪ দশমিক ৪৮ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুবরণ করেছে ৩৯ জন। এ পর্যন্ত মৃত্যু দাঁড়ালো ২ হাজার ৪৯৬ জন। শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৭ শতাংশ। মৃত্যু বিশ্লেষণে পুরুষ ৩১ জন এবং নারী ৮ জন। এ পর্যন্ত মৃত্যুবরণ করেছেন পুরুষ ১ হাজার ৯৭১ জন এবং নারী ৫২৫ জন।’

  চীন ভ্রমণ বাতিল করছেন বহু বাংলাদেশি

আমাদের বাণী ডট কম/১৬  জুলাই ২০২০/পিপিএম

সৈয়দপুরের বিজ্ঞাপন

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •