কয়েক সপ্তাহ আগেই চ্যাম্পিয়ন্স লিগের বিকল্প হিসেবে ১২টি ক্লাব নিয়ে আত্মপ্রকাশ করেছিল ইউরোপিয়ান সুপার লিগ। তবে তা খুব বেশি দূর যেতে দেয়নি ফুটবল সমর্থকরা ও উয়েফা। বিদ্রোহী এই লিগ থেকে সরে এসে ভুল স্বীকার করে চুক্তিপত্র ও অঙ্গীকারনামায় নয়টি ক্লাব স্বাক্ষর করলেও বাকি আছে তিনটি ক্লাব। ক্লাবগুলো হবে বার্সেলোনা, রিয়াল মাদ্রিদ ও জুভেন্টাস।

এক বিবৃতিতে শুক্রবার উয়েফা এ তথ্য নিশ্চিত করে জানায়, সুপার লিগ থেকে সরে আসা ক্লাবগুলো পুরনো অবস্থায় ফেরার অঙ্গীকারনামা ‘ক্লাব কমিটমেন্ট ডিক্লারেশন’-এ স্বাক্ষর করেছে। সেইসঙ্গে কয়েকটি সমঝোতা চুক্তিও করেছে। সাক্ষর করা ক্লাবগুলোর মধ্যে রয়েছে আর্সেনাল, এসি মিলান, চেলসি, অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ, ইন্টার মিলান, লিভারপুল, ম্যানচেস্টার সিটি, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও টটেনহ্যাম।

তবে যারা এখনো সাক্ষর করেনি, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর হুশিয়ারি দিয়েছে উয়েফার সভাপতি আলেকজান্ডার সেফেরিন। তিনি জানিয়েছে, যারা এখনো সাক্ষর করেনি তাদের বিরুদ্ধে ডিসিপ্লিনারি কমিটি সিদ্ধান্ত নিবে কি ধরনের শাস্তি দেওয়া যায়।

  এবার বেতন বৃদ্ধির দাবিতে আন্দোলনে সাকিব-তামিমরা

উয়েফা নতুন চুক্তিনামায় যে পয়েন্টগুলো উল্লেখ করা হয়েছে তার মধ্যে কয়েকটিতে একমত হতে পারছে না ওই তিনটি ক্লাব। প্রথমত, অন্যান্য ক্লাবের সঙ্গে এই ১২টি ক্লাবকেও ১৫ মিলিয়ন ডোনেশন দিতে হবে। যা তৃণমূল ফুটবলের উন্নয়নে ব্যবহৃত হবে। দ্বিতীয়ত, প্রতি মৌসুমে উয়েফার কাছ থেকে ক্লাবগুলো যে অর্থ পায় সেটার ৫ শতাংশ কেটে রাখা হবে এবার। তৃতীয়ত, ভবিষ্যতে এই ধরনের (সুপার লিগ) লিগ কিংবা প্রতিযোগিতা আয়োজন করার চেষ্টা করলে ১০০ মিলিয়ন ইউরো জরিমানা গুণতে হবে।