প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আকরাম-আল-হোসেন

প্রাথমিকের দুর্বল শিক্ষকদের তালিকা তৈরি করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আকরাম-আল-হোসেন। সচিব বলেন, শুধু শিক্ষার্থীদের নয়, দুর্বল শিক্ষকদেরও তালিকা তৈরি করা হবে। পরে এসব শিক্ষকদের বিশেষ প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ করে গড়ে তোলা হবে। মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করতে দক্ষ শিক্ষকের বিকল্প নেই।

তিনি বলেন, এ বছর গণিতে দক্ষতা বাড়াতে বিশেষ প্রকল্পের মাধ্যমে ৮০টি স্কুলে গণিত অলিম্পিয়াড চালু করেছিলাম। সেই প্রকল্প সফল হয়েছে। আমরা আগামী বছর ১ জানুয়ারি থেকে দেশের সব স্কুলে গণিত অলিম্পিয়াড চালু করতে যাচ্ছি। এতে শিক্ষার্থীদের মধ্যে বাংলা ও ইংরেজির মতো গণিত-ভীতিও দূর হবে।

  এমপিওভুক্তির ২০ বছর: ২ ছাত্রের জন্য শিক্ষক আছেন ৯ জন!

তার মতে, বাংলা ও ইংরেজিতে রিডিংয়ে দক্ষতার পাশাপাশি গণিত অলিম্পিয়াডের মাধ্যমে গণিতের সমস্যা কেটে যাবে। এ কর্মসূচিতে টার্গেট করা হয়েছে প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থীদের।

তিনি বলেন, এক বছর আগে বিশ্বব্যাংক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিল যে, প্রাথমিকের তৃতীয় ও পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ৬৫ শতাংশ বাংলায় রিডিং পড়তে পারে না। গত এক বছরে আমরা প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় বিভিন্ন রকম কার্যক্রম গ্রহণ করেছি। যার ফলে আমরা এখন বলছি ৬৫ শতাংশ শিক্ষার্থী রিডিং করতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *