শৈলকুপায় শাশুড়ী কর্তৃক গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ: লাশ নিয়ে স্বজনের সড়ক অবরোধ

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় স্বামী-শ্বাশুড়ীর বিরুদ্ধে গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ ও থানায় মামলা না নেওয়ার প্রতিবাদে লাশ নিয়ে সড়ক অবরোধ করেছে নিহতের স্বজনরা। গৃহবধূ হত্যা কান্ডের ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার গোয়াল খালি গ্রামে।

সোমবার সকালে উপজেলার ভাইট বাজার মহাসড়কে লাশ রেখে ঝিনাইদহ-কুষ্টিয়া মহাসড়ক অবরোধ করে।

নিহতের স্বজনেরা অভিযোগ করে বলেন, প্রেমের সর্ম্পকের জেরে প্রায় ১ বছর আগে উপজেলার গোয়াল খালি গ্রামের ফিরোজ হোসেনের মেয়ে সোনিয়ার বিয়ে হয় একই গ্রামের বাদশা হোসেনের ছেলে সজীবের সাথে। বিয়ের পর থেকে সোনিয়াকে বিভিন্ন সময় নির্যাতন করে আসছিল শ্বশুরবাড়ির লোকজন। এরই জের ধরে রোববার সকালে সোনিয়াকে হত্যা করে গলায় ওড়না দিয়ে ঘরে ঝুলিয়ে রেখে ঘরে তালা দিয়ে পলিয়ে যায় পরিবারের লোকজন। খবর পেয়ে নিহতের পিতা-মাতা পুলিশে খবর দিলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়।’

এ ঘটনায় পরিবারের লোকজন থানায় হত্যা মামলা দিতে গেলে পুলিশ মামলা গ্রহণ না করে অপমৃত্যু মামলা রেকর্ড করে। সেই সাথে আটক হওয়া শ্বাশুড়ী ও শ্বশুরকে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ করেন।

  একদিনে সর্বোচ্চ ৯১ জনের করোনা শনাক্ত

এ ঘটনার প্রতিবাদে সোমবার সকালে মহাসড়কে লাশ রেখে অবরোধ করে তার স্বজনরা। পরে থানায় মামলা ও দোষীদের গ্রেফতারে পুলিশের আশ্বাসে প্রায় দেড় ঘন্টা পরে সড়ক অবরোধ তুলে নেওয়া হয়।

শৈলকুপা থানার ওসি কাজী আয়ুবুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, গতকাল সোনিয়া আত্মহত্যা করেছিল বলে প্রাথমিক তদন্তে পাওয়া গেছে। লাশের ময়নাতদন্ত করা হয়েছে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট এলে বিস্তারিত জানা যাবে। তিনি আরও বলেন, সোনিয়ার একটি ডায়রি পাওয়া গেছে সেখানে উল্লেখ আছে তার মৃত্যুর জন্য কে কে দায়ী। ময়নাতদন্তে রিপোর্টে হত্যার বিষয় এলে হত্যা মামলা আর আত্মহত্যার রিপোর্ট এলে আত্মহত্যার প্ররোচনার মামলা নেওয়া হবে।

আমাদের বাণী-/ঢাকা/এবি

[wpdevart_like_box profile_id=”https://web.facebook.com/amaderbanicom-284130558933259/” connections=”show” width=”300″ height=”550″ header=”small” cover_photo=”show” locale=”en_US”]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *