Shadow

সাত কলেজ থেকে আলাদা রঙের সার্টিফিকেট দাবি ঢাবির জন্য লজ্জার

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এক ছাত্রনেতা তর্ক করছিল আমার সাথে যে ঢাবি আর সাত কলেজের সার্টিফিকেট না কি একই।

আমি বললাম, না মোটেও এক নয়। আমি নিজে হাতে নিয়ে দেখেছি, সাত কলেজের সার্টিফিকেট, মার্কশিট সব গুলোতে নিজ নিজ কলেজের নাম ও কলেজ কোড আলাদা ভাবে লিখা থাকে।

তখন সে বলল, আরে তা তো থাকেই, কিন্ত তা দেখতে একই রকম আর কি।

আমি বললাম, এতে সমস্যা কি?
সে বলল আছে, জব সেক্টরে ঢাবি সার্টিফিকেট আলাদা গুরুত্ব পায়।
আমি বললাম, ওখানে তো লিখায় থাকবে ঢাকা কলেজ বা তিতুমীর কলেজ।
তখন সে বলল, আরে বুঝেন না কেন, নিয়োগ দাতাদের কষ্ট হয় এত সার্টিফিকেটের মাঝে কোনটা ঢাবি কোনটা ঢাকা কলেজ বাছাই করতে।

এবার আসি, আমি আমার বিশ্লেষনে, ঢাবির ছেলে মেয়ে সার্টিফিকেটের জোড়ে চাকরি পায় এটা ঢাবিয়ানরাও বুঝতে পেরেছে দিন শেষে। তা না হলে নিয়োগ কর্তার ঢাবি সার্টিফিকেট বাছাই করতে কষ্ট হচ্ছে কি না তা তার ভাবনায় আসার কথা নয়।

এখন পর্যন্ত ঢাবিতে যারা চান্স পেয়েছে তাদের সাথে ৭ কলেজের ছাত্রদের মেধার মাঝে পার্থক্য, শুধু ১-২ টা গোল্লা ভরাট ছাড়া আর কিছুই দেখি না।

আবার ঢাবিতে যেমন ডাবল এ প্লাস ছাড়া ছাত্র আছে, ৭ কলেজেও তেমন ডাবল এ প্লাস যুক্ত ছাত্র আছে।
এর পড়েও এডমিশনে ২ টা গোল্লা বেশি ভরাট করায় তাদেরকেই মেধাবী ধরে নিচ্ছি আজ আমি।

সে যোগ্যতায় ঢাবিয়ানরা বেশি মেধাবী দাবি করলেও, চাকরি ক্ষেত্রে ঢাবি ছাত্ররা ৭ কলেজের চেয়ে আলাদা সার্টিফিকেট দাবি করছে চাকরির ভাইবা বা নিয়োগে সার্টিফিকেটের জোড়ে বিশেষ অনুকম্পা পাবার আসায়।

  আইডিয়াল কলেজ ধানমণ্ডিতে ৭ই মার্চের ভাষণের উপর রচনা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

এখন ঢাবিয়ানদের আলাদা রঙের সার্টিফিকেট প্রত্যাশা তাদের মেধার বিপর্যয় না কি নৈতিকতার বিপর্যয় তা আমি ভেবে কূল পাচ্ছি না।

আর জব সেক্টরের কথা মাথায় রেখে আলাদা রঙের সার্টিফিক দাবি ৭ কলেজের সাথে চাকরীর বাজারে প্রতিযোগিতায় পরাজয় মেনে নেয়ারই একটা নমুনা হিসাবে নিচ্ছি।

আর, সাত কলেজ ছাড়া বাকি ১০৪ টার অধিভুক্তি বাতিল চাচ্ছে না, বা বলছেও না আলাদা সার্টিফিকেট দিতে হবে তাদের।
এই কথার মাঝে আমি ৭ কলেজের একটি বিশেষ সম্মানের জায়গা খুজে পাচ্ছি। সেটি হলো ৭ কলেজ চাকরির বাজারে ঢাকা শহরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যতম প্রতিদ্বন্দী। যেটা অন্য অধিভুক্ত প্রতিষ্টানগুলো নয়।

কেননা, বিসিএসসহ সকল সম্মানের চাকরীতে তারা সফল বিচরণের উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত রেখেছে।

লেখক
মো: তারেক রহমান
সাবেক ছাত্র (৪র্থ ব্যাচ)ব্যবস্থাপনা শিক্ষা বিভাগ
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়।

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *