প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য দেশবাসীর প্রতি জোর তাগিদ দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, বৈশ্বিক মহামারি করোনার প্রকোপ থেকে বাঁচতে আপনারা স্বাস্থ্যবিধি মনে চলুন। নিজে সুরক্ষিত থাকুন, অন্যকেও সুরক্ষিত রাখুন। সার্বিক সহায়তা নিয়ে সরকার আপনাদের পাশে আছে।

রোববার করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তা প্রদান অনুষ্ঠান উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন। বঙ্গভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে এ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী প্রশ্ন রাখেন, আজকে যারা ঘরে বসে বিবৃতি দিচ্ছে, তারা কি অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে? আজকে যারা সরকারের সমালোচনা করছে, জনগণের জন্য তারা কী করেছে। শক্তিশালী বিরোধী দল গড়তে হলে মানুষের জন্য কাজ করতে হয় বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা বলেন, যারা সরকার পতনের কথা বলে, তারা কয়জন মানুষের উপকার করেছে? এ দেশের মানুষ কিছু পেয়ে থাকলে আওয়ামী লীগের আমলেই পেয়েছে। জাতির পিতার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগই এদেশের স্বাধীনতা এনে দিয়েছে। জাতির পিতা যে আকাঙ্ক্ষা নিয়ে দেশ স্বাধীন করেছিলেন, আমরা সেটাই বাস্তবায়ন করতে চাই।

  করোনার বিষাক্ত ছোবলে ক্ষতবিক্ষত মন্ত্রীসভা!

সরকার প্রধান বলেন, ঈদ উৎসব তো আছেই। এটা সবাই উদযাপন করবেন। কিন্তু স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে। ঈদের আনন্দ করবেন। কিন্তু যারা মারা গেছে, তাদের কথাও ভাবুন। নিজের জীবন বিপন্ন করে উৎসব নয়। মাস্ক ছাড়া ঘরের বাইরে যাবেন না। গরম পানির ভাপ নেয়া, গরম পানি খাওয়ার মতো বিষয়গুলো যত্ন সহকারে মানার জন্য আমি সবার প্রতি অনুরোধ জানাই।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাইরে থেকে ভাইরাস নিয়ে এসে নিজের পরিবারের ক্ষতি করবেন না। আমরা যে নির্দেশনাগুলো দিচ্ছি, সেগুলো মানতে হবে। কোয়ারেন্টাইনের বিষয়গুলো মানতে হবে। আপনারা সচেতন হোন, স্বাস্থ্যবিধি মানুন। দেশের অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড আমরা সচল রাখার চেষ্টা চালাচ্ছি।

প্রসঙ্গত, করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তার আওতায় সাড়ে ৩৬ লাখ পরিবার পাবে নগদ টাকা। ২ হাজার ৫০০ টাকা করে দেয়া হবে প্রত্যেক পরিবারকে।