Shadow

১৩তম গ্রেডে বেতন কমবে না: প্রাথমিক শিক্ষকদের সঙ্গে বৈঠকে অর্থ সচিব

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সরকারের দিতে চাওয়া ১৩তম গ্রেডে সহকারী শিক্ষকদের বেতন কমবে না বলে আশ্বাস দিয়েছেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের সচিব আব্দুর রউফ তালুকদার।

মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) প্রাথমিক শিক্ষক ঐক্য পরিষদের নেতাদের সাথে অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে তিনি এ আশ্বাস দেন।

বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক মোঃ আনিসুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, শিক্ষকদের একটি প্রতিনিধি দল অর্থ মন্ত্রণালয়ের সচিব আব্দুর রউফ তালুকদারের সাথে বৈঠক করেছি। বৈঠকে সহকারী শিক্ষকদের বেতন না কমার আশ্বাস দিয়েছেন সচিব মহোদয়। ওই গ্রেডে রেখেই বেতন বৃদ্ধি করা হবে। এ বিষয়টি আমরা প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিবকেও জানিয়েছি।

গত ৭ নভেম্বর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের ১১তম ও সহকারী শিক্ষকদের ১৩তম গ্রেডে বেতন প্রস্তাবে সম্মতি জানিয়েছে অর্থ মন্ত্রণালয়। আগে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত সহকারী শিক্ষকরা ১৪তম গ্রেডে ও প্রশিক্ষণবিহীন সহকারী শিক্ষরা ১৫তম গ্রেডে বেতন পেতেন। আর প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকরা ১১তম গ্রেডে ও প্রশিক্ষণবিহীন প্রধান শিক্ষকরা ১২ তম গ্রেডে বেতন পেতেন। আগে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকরা প্রশিক্ষণবিহীন শিক্ষকদের থেকে একধাপ উপরের গ্রেডে বেতন পেলেও নতুন গ্রেডে সে ভেদাভেদ থাকছে না।

সে প্রেক্ষিতে ১৩তম গ্রেডে শিক্ষকদের বেতন কমবে বলে দাবি করে শিক্ষক নেতারা। তাই, শিক্ষকদের নতুন বেতন গ্রেড শিক্ষক সমাজ সমালোচিত হয়েছে। সে প্রেক্ষিতে আজ অর্থ সচিব সচিব আব্দুর রউফ তালুকদারের সাথে দেখা করতে যান বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক ঐক্য পরিষদের নেতারা।

দুপুর ১২টায় শুরু হওয়া ওই বৈঠকে বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক ঐক্য পরিষদের আহবায়ক মো.আনিসুর রহমান, সদস্য সচিব মোহাম্মদ শামসুদ্দীন মাসুদ, প্রধান মুখপাত্র মো. বদরুল আলম, প্রধান উপদেষ্ঠা আনোয়ারুল ইসলাম তোতা, মুখপাত্র এন এ সিদ্দিকি রবিউল, প্রধান সমন্বয়ক আতিকুল ইসলাম তোতা, সদস্য বেগম বাঁধন খান ববি উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে ঐক্য পরিষদের প্রধান মূখপাত্র মো. বদরুল আলম বলেন, বেতন বৈষম্য নিরসনে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সচিব আব্দুর রউফ তালুকদারের সাথে বৈঠক করেছেন বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক ঐক্য পরিষদের নেতারা। এ সময় ১৩তম গ্রেডে প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন যাতে না কমে সেই ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন অর্থ সচিব। শুধু তাই নয়, বিভিন্ন ধাপে ধাপে প্রাথমিক শিক্ষকদের বাকি দাবিগুলোও পূরণ করা হবে বলে আশ্বাস দেন তিনি।

  একাদশে ভর্তির আবেদন করেনি প্রায় আড়াই লাখ শিক্ষার্থী, ঝড়ে পড়ার আশংকা

তিনি আরও বলেন, বৈঠকে শিক্ষক নেতারা অর্থ সচিবের কাছে শিক্ষকদের বিভিন্ন সমস্যা ও ১৩তম গ্রেডে প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন কমে যাওয়ার বিষয়টি উপস্থাপন করেন। পরে অর্থ সচিব ১৩তম গ্রেডেই শিক্ষকদের বেতন বাড়ানোর ব্যবস্থা করা হবে বলে আশ্বাস দেন। এছাড়াও পর্যায়ক্রমে বাকি দাবিগুলো মেনে নেয়া হবে বলেও শিক্ষকদের আশ্বস্ত করেন তিনি।

তিনি আরও জানান, বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক ঐক্য পরিষদের নেতারা প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব মো. আকরাম আল হোসেনের সাথে দেখা করেন এবং অর্থ সচিবের আশ্বাসের বিষয়টি তাকে অবগত করেন।

আলোচনা শেষে শিক্ষক নেতারা জানান, আমরা প্রধান শিক্ষকদের ১০ম গ্রেড ও সহকারী শিক্ষকদের ১১তম গ্রেডের দাবিতে অনড় আছি এবং এই প্রস্তাবনা হতে হবে উচ্চ ধাপে।

তবে অর্থসচিবের আশ্বাসে আস্বস্ত হতে পারছেন না সাধারণ শিক্ষকরা। তারা বলছেন, আমাদের চাওয়া ১১তম গ্রেড, ১৩তম নয়। তাই এখনই আমরা বিষয়টি মেনে নিচ্ছি এটা ভাবার কারণ নেই। পরিস্থিতি বিবেচনায় পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক অনলাইন সমিতির সভাপতি কাজী আবু নাসের আজাদ  বলেন, প্রথম কথা হলো আমরা ১৩তম গ্রেড চাইনি আমরা চেয়েছি ১১তম গ্রেড। এখন যদি ১৩ তম গ্রেড চাপিয়ে দেওয়া হয় তাহলে আমাদের সবার কম বেশি বেতন কমে যাবে যদি ফিগজেশানে নিম্ন ধাপ ধরা হয়। আমরা শুনেছি মাননীয় অর্থ সচিব মহোদয় বলেছেন ফিগজেশানে উচ্চ ধাপ দেওয়া হবে। কিন্তু এভাবে বললে তো হবে না। প্রজ্ঞাপন জারি করে বলতে হবে।

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *