সাধারণত সাপের মাত্র একটি মাথা থাকে। তবে এবার দেখা মিলেছে দুই মাথাওয়ালা সাপের। আমেরিকার নর্থ ক্যারোলিনার বাসিন্দা জেনি উইলসন প্রথম দেখেছেন এই সাপ। এরপর তিনি ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করেন, যা এখন রিতিমত ভাইরাল।

জেনি উইলসন সাপ দেখার পর নিরাপদ দূরত্বে গিয়ে ফোন করে নিজের স্বামীকে ডাকেন। তবে তিনি সাপটিকে মারা তো দূরের কথা, আঘাতও করেননি। বরং প্রথমে ভিডিও করেন এবং তার পরে একটি জারে ঢুকিয়ে ফেলেন দু-মাথা ওয়ালা সাপটিকে।

জেনি বলেন, প্রথমে ভয় পেয়েছিলাম। তারপরে দুটি মাথা দেখে অবাক হয়ে যাই। কিন্তু আমি সাপটাকে মেরে ফেলতে চাইনি। তাই জারে ভরে ফেলি। ফেসবুকে ভিডিও পোস্ট করার সময়ে জেনি ঘরের মধ্যে মেলা দুই মুখওয়ালা সাপের নাম দিয়েছেন, ‘ডবল ট্রাবল’।

  করোনায় মেক্সিকোর স্বাস্থ্যমন্ত্রীর মৃত্যু

পরে কাটাওবা সায়েন্স সেন্টার কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করে সাপটিকে ওই সংস্থার হাতে তুলে দিয়েছেন জেনি। ওই বিজ্ঞান সংস্থাটি জানিয়েছে, সাপটি মোটেও বিষধর নয়। ব়্যাট স্নেক প্রজাতির সাপটির বয়স চার মাসের মতো। তবে একটা সাপের দুটি মুখ হওয়াটা খুবই বিরল। সাধারণত এক লাখের মধ্যে এমন সাপ একটি হয়। কাটাওবা সায়েন্স সেন্টার জানিয়েছে, এই বিরল সাপটিকে স্কুল পড়ুয়াদের দেখানোর জন্য রাখা হবে।

আমাদের বাণী ডট কম/৫ অক্টোবর ২০২০/পিপিএম