Shadow

করোনা আক্রান্ত ফরিদপুর পুলিশের ২৮৩ সদস্য, মৃত ২

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ফরিদপুর জেলা সংবাদদাতা; জেলার  মধুখালী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আনিসুজ্জামান লালন তার পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। গত ১০ জুলাই ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ল্যাবে করোনা পরীক্ষায় তার শরীরে করোনা ধরা পড়ে। এছ্ড়াা এর আগেই করোনায় আক্রান্ত রয়েছেন ফরিদপুর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রাশেদুল ইসলাম ও তার পরিবার পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে।

ফরিদপুর জেলা পুলিশ প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, ফরিদপুরে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন জেলা পুলিশের এ পর্যন্ত ২৮৩ সদস্য তাদের পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে। এদের মধ্যে এ পর্যন্ত ১৩১ জন সুস্থ হয়েছেন। এখনো করোনা শরীরে বয়ে বেড়াচ্ছেন ১৫২ পুলিশ সদস্য। আক্রান্তদের মধ্যে থেকে জেলা পুলিশের দুই সদস্য মৃত্যুবরণ করেছেন করোনায় আক্রান্ত হয়ে।

ফরিদপুর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মোরশেদ আলম করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন বলে জানা গেছে। কিছুদিন পূর্বে তিনি করোনায় আক্রান্ত হলে হোম কোয়ারেনটাইনে চলে যান। তবে কোতোয়ালি থানার সেকেন্ড অফিসার মো. বেলাল হোসেন এখনও সুস্থ হননি বলে জানা গেছে।

শুক্রবার কোতোয়ালি থানার ওসির সাথে তার সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি সৃষ্টিকর্তাকে স্মরণ করে বলেন, আল্লাহর রহমতে এখন সুস্থ হয়েছি। দ্বিতীয় বারের পরীক্ষায় নেগেটিভ এসেছে বলেও জানান তিনি। করোনা পরিস্থিতির পর ফরিদপুরে গণ মানুষের সেবায় পুলিশ সুপার আলীমুজ্জামান বিপিএম এর নির্দেশে ফরিদপুর পুলিশ বিভাগের সব কর্মকর্তা ও সদস্যরা রাত-দিন মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে কাজ করেন।

এমন কি বিপদগ্রস্ত নিম্নমধ্যবিত্তদের বাড়ি বাড়ি জরুরি খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেওয়া ছাড়াও নানা দায়িত্ব পালন করেন। এসব কাজ করতে গিয়ে তারা আক্রান্ত হন বলে জানা গেছে।

জেলার বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দারা জানান, জেলার জনবান্ধব পুলিশ সুপার আলীমুজ্জামান বিপিএম তার জেলা পুলিশ টিম নিয়ে যে ভূমিকা দেখিয়ে চলছেন তা আজীবন আমরা মনে রাখবো। তার মতো এমন অফিসার হয় না। তিনি শুধু করোনা বিষয় নিয়ে নয় জেলায় সন্ত্রাস দমন ও জেলার আইনশৃংখলা শক্ত হাতে ধরে রেখেছেন। তার নানামুখী উদ্যোগের কারণেই আমরা এখন নিরাপদে পথ চলতে পারি বলেও জানান অনেকে।

  করোনা প্রতিরোধে ফুলবাড়ীতে  জীবাণুনাশক স্প্রে

এদিকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত অনলাইন স্বাস্থ্য বুলেটিনের সর্বশেষ (১৮  জুলাই ২০২০)  তহ্য অনুযায়ী,  গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৩৪ জনের মৃত্যু হয়েছে, এ নিয়ে মৃত্যুর সংখ্যা ২৫৮১ জনে।  একই সময়ে করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হয়েছেন ২  হাজার ৭০৯ জন। মোট শনাক্তের সংখ্যা ২ লাখ ২ হাজার ৬৬  জন।গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ১০ হাজার ৬৩২টি। আর নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১০ হাজার ৯২৩টি। মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১০ লাখ ১৭ হাজার ৬৭৪টি। ২৪ ঘণ্টায় এই সংগৃহীত নমুনা থেকে শনাক্ত রোগী পেয়েছি ২ হাজার ৭০৯ জন। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২৪ দশমিক ৮০ শতাংশ। এ পর্যন্ত শনাক্ত ২ লাখ ২ হাজার ৬৬ জন। শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ৮৬ শতাংশ।’ ‘২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছে ১ হাজার ৩৭৩ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছে ১ লাখ ১০ হাজার ৯৮ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৫৪ দশমিক ৪৯ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুবরণ করেছে ৩৪ জন। এ পর্যন্ত মৃত্যু দাঁড়ালো ২ হাজার ৫৮১ জন। শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৮ শতাংশ। মৃত্যু বিশ্লেষণে পুরুষ ৩১ জন এবং নারী ৮ জন। এ পর্যন্ত মৃত্যুবরণ করেছেন পুরুষ ২ হাজার ৪০ জন এবং নারী ৫৪১ জন।’

আমাদের বাণী ডট কম/১৮  জুলাই ২০২০/পিপিএম

সৈয়দপুরের বিজ্ঞাপন

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •