স্ত্রী আটক

আশরাফুল ইসলাম, গাইবান্ধা জেলা সংবাদদাতা; জেলার  সাদুল্লাপুর উপজেলায় আবুল কালাম (৭০) নামে এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে তার স্ত্রীর শিউলি বেগমকে আটক করেছে পুলিশ।

গতকাল মঙ্গলবার (২৬ মে ২০২০ ) রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার দামোদরপুর ইউনিয়নের জামুডাঙ্গা গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে আবুল কালামের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, আবুল কালামের দ্বিতীয় স্ত্রী শিউলি বেগম। দাম্পত্য কলহের কারণে আবুল কালামকে প্রায়ই মারধর করতেন তিনি। ঈদের দুইদিন আগেও কালামকে লাঠি দিয়ে মারধর করেন শিউলি। এতে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় মঙ্গলবার সকালে বাড়িতেই মারা যান কালাম। তিনি সাদুল্লাপুর সাব-রেজিস্ট্রি অফিসের মুয়াজ্জিন ছিলেন।

  • স্বজন ও প্রতিবেশীরা জানায়, লাঠি দিয়ে এলোপাতাড়ি মারধরে কালামের হাত-পা ও শরীর জখম হয়। কিন্তু চিকিৎসা না করে তাকে বাড়িতে আটকে রাখা হয়। তার সঙ্গে কাউকে দেখা করতে দেয়া হয়নি। এমনকি কালামের মৃত্যুর ঘটনাও গোপনের চেষ্টা করেন শিউলি। শিউলির অত্যাচার ও মারধরেই কালামের মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি তাদের।
  যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীর চুল কাটলো পাষণ্ড স্বামী

নিহত আবুল কালামের ছেলে মমিনুল ইসলাম বলেন, সৎ মা দীর্ঘদিন ধরে বাবাকে মারধর ও নির্যাতন করতো। পরিকল্পিতভাবে তাকে হত্যার পরও তা গোপনের চেষ্টা করেন তিনি। এ ঘটনায় সৎ মা ও জড়িতদের সর্ব্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানান মমিনুল।

সাদুল্লাপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাসুদ রানা জানান, নিহতের হাত-পা ও শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। অভিযুক্ত স্ত্রী শিউলিকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য গাইবান্ধা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

আমাদের বাণী ডট কম/২৭  মে ২০২০/সিসিপি