Shadow

বিএড স্কেল পাচ্ছেন ১ হাজার ২৩৯ জন শিক্ষক

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আরো ১ হাজার ২৯৭ জন শিক্ষক-কর্মচারীকে এমপিওভুক্তির সিদ্ধান্ত হয়েছে। এরা সবাই বেসরকারি স্কুল ও কলেজে কর্মরত রয়েছেন। তারা অনলাইনে ও অফলাইনে এমপিওর আবেদন করেছিলেন।

রোববার মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরে অনুষ্ঠিত এমপিও কমিটির নিয়মিত সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। প্রতি বিজোড় মাসে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। পদাধিকার বলে সভায় সভাপতিত্ব করেন মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক।

স্কুল ও কলেজের ১ হাজার ২৯৭ জন শিক্ষক-কর্মচারীর মধ্যে বরিশাল অঞ্চলে ১১১ জন, চট্টগ্রামের ১১২ জন, কুমিল্লার ৭৯ জন, ঢাকার ২৫৬ জন, খুলনার ১০৯ জন, ময়মনসিংহের ১৪৮ জন, রাজশাহীর ১৬২ জন, রংপুরের ২৫৯ জন এবং সিলেট অঞ্চলে ৫৯ জনকে এমপিওভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এছাড়া অফলাইনে আবেদন করা ২ শিক্ষককে এমপিওভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে এমপিও কমিটি।

এছাড়া এমপিওভুক্ত ৪৩ জন শিক্ষককে টাইমস্কেল দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে এমপিও কমিটি। জানা গেছে, স্কুল-কলেজের ৪৩ শিক্ষকের মধ্যে বরিশাল অঞ্চলের ৩ জন, চট্টগ্রাম অঞ্চলের ১ জন, কুমিল্লা অঞ্চলের ৪ জন, ঢাকার ১১ জন, খুলনার ১ জন, ময়মনসিংহের ১১ জন এবং রংপুরের ১২ জন শিক্ষককে টাইমস্কেল দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়।

অন্যদিকে বেসরকারি স্কুল-কলেজ ১ হাজার ২৩৯ জন শিক্ষককে বিএড স্কেল দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের এমপিও কমিটি।

জানা গেছে, স্কুল-কলেজের ১ হাজার ২৩৯ জন শিক্ষকের মধ্যে বরিশাল অঞ্চলের ১৩৫ জন, চট্টগ্রামের ৫১ জন, কুমিল্লার ১০১ জন, ঢাকার ১৭০ জন, খুলনার ২০৩ জন, ময়মনসিংহের ১৫৯ জন, রাজশাহীর ২১৬ জন, রংপুরের ১৩৩ জন এবং সিলেট অঞ্চলের ৭১ জন শিক্ষককে বিএড স্কেল দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে এমপিও কমিটি। এদিকে মাদরাসা শিক্ষক-কর্মচারীদের নতুন এমপিও সফটওয়্যার মেমিসে তথ্য অন্তর্ভুক্তির জন্য ইএমআইএস সেল থেকে তথ্য নেয়া হচ্ছে। তাই সেপ্টেম্বর মাসের এমপিও কমিটি মাদরাসার শিক্ষক-কর্মচারীদের বিএড স্কেল প্রদান করা হয়নি। গত ১১ সেপ্টেম্বর ইএমআইএস সেলে মাদরাসা শিক্ষকদের অনলাইন ও অফলাইনে নতুন এমপিওভুক্তি, বকেয়া বেতন-ভাতা পরিশোধ ও তথ্য সংশোধনী কার্যক্রম স্থগিত করেছে মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর।

  মাদ্রাসা ও মসজিদ পুড়িয়ে দেয়ার হুমকি, প্রতিবাদে মানববন্ধন

এছাড়া সভায় এমপিভুক্ত পদে কর্মরত ইনডেক্সবিহীন শিক্ষকদের এমপিওভুক্তি, অভিজ্ঞতার উচ্চতর স্কেল, সহকারী অধ্যাপক পদের স্কেল, টাইমস্কেল ও সিলেকশন গ্রেড, বিএড বা কামিল স্কেল, সহকারী লাইব্রেরিয়ান পদের এমপিওসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়।

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *