নারী মেন্টর শিক্ষিকা

সব স্কুলের মত প্রতিটি মাদরাসায়ও নারী মেন্টর শিক্ষক নিযুক্ত করার নির্দেশ দিয়েছে মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড। মাদরাসায় কর্মরত শিক্ষকদের মধ্য থেকে একজন নারী শিক্ষককে মেন্টর শিক্ষকের দায়িত্ব দেয়া হবে। তিনি ছাত্রীদের সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক স্থাপনের মাধ্যমে পারস্পারিক মিথস্ক্রিয়া বৃদ্ধি করবেন। নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এছাড়া মাদরাসার পাঠ্যপুস্তকের অন্তর্ভুক্ত জেন্ডার সম্পর্কিত বিষয় নিয়ে মাদরাসায় পর্যালোচনার ব্যবস্থা করা, মাদরাসায় প্রজনন স্বাস্থ্যের বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি এবং ছাত্রীদের জন্য পৃথক পরিচ্ছন্ন টয়লেটের ব্যবস্থা করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড থেকে সব মাদরাসার অধ্যক্ষ ও পরিচালনা পরিষধের সভাপতিকে এ সংক্রান্ত চিঠি পাঠানো হয়েছে।

নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে জাতীয় কর্মপরিকল্পনা (২০১৮-২০৩০) বাস্তবায়নে অনুষ্ঠিত আন্তঃমন্ত্রণালয় সভার সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে এ নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। মাদরাসায় নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে মনিটরিং ব্যবস্থা জোরদার করতে বলা হয়েছে। এছাড়া মাদরাসা শিক্ষার্থীদের নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে টোলফ্রি হেল্পলাইন ১০৯ সম্পর্কে জানাতে বলা হয়েছে।

  পদোন্নতি পাচ্ছেন যে ২৫০৮ শিক্ষক (তালিকাসহ)

সম্প্রতি বাংলাদেশ শিশু একাডেমিতে ‘নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে জাতীয় কর্মপরিকল্পনা (২০১৮-২০৩০)’ বাস্তবায়নে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে সভাপতিত্ব করেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব কামরুন নাহার। সভার এ সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতেই এসব নির্দেশনা দিয়েছে মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড।

সভায়, প্রতিটি স্কুলে একজন করে নারী মেন্টর শিক্ষক থাকা বাধ্যতামূলক করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। স্কুলে কর্মরত শিক্ষকদের মধ্য থেকে একজন নারী শিক্ষককে মেন্টর শিক্ষকের দায়িত্ব দেয়া হবে। তিনি ছাত্রীদের সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক স্থাপনের মাধ্যমে পারস্পারিক মিথস্ক্রিয়া বৃদ্ধি করবেন। এছাড়া স্কুলে পাঠ্যপুস্তকের অন্তর্ভুক্ত জেন্ডার সম্পর্কিত বিষয় নিয়ে বিদ্যালয়ে পর্যালোচনার ব্যবস্থা করা, বিদ্যালয়ে প্রজনন স্বাস্থ্যের বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি এবং ছাত্রীদের জন্য পৃথক পরিচ্ছন্ন টয়লেটের ব্যবস্থা করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *