গতকাল মঙ্গলবার দিনে-দুপুরে যশোর কোতোয়ালি মডেল থানার পাশে বোমা ফাটিয়ে ১৭ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। থানার ১০০ গজের মধ্যে ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেডের (ইউসিবিএল) সামনে এ ঘটনায় ছুরি ও বোমার আঘাতে টাকা বহনকারী দুই জন আহত হয়েছেন।

আহতরা হলেন—শহরের বকচর হুশতলা এলাকার হাবিবুর রহমানের ছেলে এবং আরএন রোড এলাকার আগমনী মোটরসের মালিক ইকবাল হোসেনের ভাই এনামুল হক (৩৫) ও একই এলাকার ইমদাদুলের ছেলে ইমন (২০)। এদের মধ্যে এনামুলের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও আহতরা জানান, দুপুরে আগমনী মটরসের ১৭ লাখ টাকা ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেডে (ইউসিবিএল) জমা দেওয়ার জন্য মোটরসাইকেলে আসেন এনামুল ও ইমন। ব্যাংকের সামনে মোটরসাইকেল থেকে নামার পর ওঁত্ পেতে থাকা সাত-আট জন মুখোশধারী তাদের ঘিরে ধরে। দুর্বৃত্তরা এনামুলের হাতে, পেটে ও বুকে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে সঙ্গে থাকা ১৭ লাখ টাকা ছিনিয়ে নেয়। এরপর শক্তিশালী একটি বোমা ফাটিয়ে সিটি প্লাজার সামনের গলি দিয়ে মোটরসাইকেলে পালিয়ে যায়। বোমায় ব্যাংকের এটিএম বুথের গ্লাস ভেঙে যায়। এ সময় ইমনও আহত হন।

  নীলফামারীতে করোনায় আক্রান্ত ৫ ব্যাংক কর্মকর্তা

ঘটনার পরপরই পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে আসে। আহত দুই জনকে উদ্ধার করে যশোর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এনামুলের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের চিকিত্সক আব্দুুর রশিদ তাকে খুলনায় পাঠান। ইমনকে প্রাথমিক চিকিত্সা দেওয়া হয়েছে।

আমাদের বাণী ডট কম/৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০/পিপিএম