Shadow

বন্যার জলে রানীগঞ্জ রৌয়াইল সড়ক ভেঙে গেছে

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

হুমায়ূন কবীর ফরীদি, জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) সংবাদদাতাঃ জগন্নাথপুরে কুশিয়ারা নদীর পানি বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। থেমে থেমে প্রবল বৃষ্টিপাত আর পাহাড়ি ঢলের পানি ক্রমান্বয়ে বৃদ্ধি পাচ্ছে। রানীগঞ্জ দক্ষিণপাড়- রৌয়াইল সড়ক বন্যার পানির স্লোতে ভেঙে যাওয়ায় যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে পড়েছে। ইতিমধ্যে বানের জলে উপজেলার কয়েক হাজার মানুষ পানি বন্দী হয়ে পড়েছেন।

জানাযায়, সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলায় কুশিয়ারা নদীর পানি বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়ে ১৩ ই জুলাই বিকালে উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের নোয়াগাঁও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পার্শ্ববর্তী  রানীগঞ্জ দক্ষিণপাঁড়-রৌয়াইল সড়কের বেশ কিছু এলাকা জুড়ে  বন্যার পানির স্রোতে সড়ক ভেঙ্গে যানবাহন চলাচল বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। নোয়াগাঁও গ্রামের লোকজন মিলে পানি আটকানো চেষ্টা করলেও পানি চলাচল বন্ধ করা সম্ভব হয়নি। ফলে এই সড়ক দিয়ে  চলাচলকারী হাজার হাজার জনসাধারন বিপাকে পড়েন। পরে এলাকাবাসী মিলে পায়ে হেঁটে  চলাচলের জন্য  বাশেঁর সাকু তৈরী করেছেন।এই ভাঙন দিয়ে প্রবল স্রোতে বানের জল প্রবাহিত হওয়ায়  নোয়াগাঁও সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় বেশি ঝুকিঁর মধ্যে রয়েছে। বিদ্যালয়ের পাশ দিয়ে পানি চলাচল করায় পানি স্রোতে বিদ্যালয়ের বড় ধরনের ক্ষতির সম্ভবনা রয়েছে।

নোয়াগাঁও গ্রামের একাধিক ব্যাক্তি জানান, নোয়াগাঁও গ্রামের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে রাস্তা ভেঙ্গে হাওরে পানি প্রবেশ করছে। বেশি ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে নোয়াগাঁও সরকারি  প্রাথমিক বিদ্যালয়। বিদ্যালয়ের পাশ দিয়ে পানি চলাচল করায় পানি স্রোতে বিদ্যালয়ের বড় ধরনের ক্ষতির সম্ভবনা রয়েছে। বিদায় ভাঙনের কবল থেকে  বিদ্যালয়টি রক্ষাকল্পে তরিত গতিতে মেরামত কাজ করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করছেন এলাকার সচেতন মহল ।

  সুনামগঞ্জ সীমান্তে ভারতীয় কয়লা ও মদের চালান আটক

জগন্নাথপুর উপজেলা প্রকৌশলী ( এলজিইডি) মো: গোলাম সারোয়ার বলেন, সড়ক ভেঙ্গে যাওয়ার বিষয়ে উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করা হয়েছে। বরাদ্দ পেলে রাস্তাটি মেরামত করা সম্ভব হবে। এছাড়াও জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদ ও ইউনিয়ন পরিষদকে বিষয়টি অবগত করা হয়েছে।
এদিকে  উপজেলা সদর সহ বিভিন্ন হাট-বাজার ও গ্রামাঞ্চলের প্রায় ৩০ হাজার মানুষ পানি বন্দী হয়ে পড়েছেন। আজ ১৪ ই জুলাই তারিখেও অত্র উপজেলার সর্বত্র ক্রমান্বয়ে বন্যার পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। গতকাল ১৩ ই জুলাই থেকে বন্যার্থদের মাঝে সরকারি ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছে।
জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মাহফুজুল আলম মাসুম বলেন, বন্যা পরিস্থিতির খোঁজ খবর নিচ্ছি। বন্যার্থদের মাঝে ত্রান সামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছে।

আমাদের বাণী ডট কম/১৪ জুলাই  ২০২০/পিপিএম

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •