একাদশে ভর্তি

আগামীকাল শেষ হচ্ছে একাদশে ভর্তি নিশ্চায়নের সময়। কিন্তু আজ সোমবার বিকেল পর্যন্ত ৪ লাখ ৮২ হাজার ৪৭৩ জন শিক্ষার্থী ভর্তি নিশ্চায়ন করেনি। ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের একাধিক কর্মকর্তা এ তথ্য জানান।

কর্মকর্তারা জানান, নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ভর্তি নিশ্চায়ন না করলে মনোনয়ন ও আবেদন বাতিল হবে। এ জন্য তাদের পুনরায় টাকা দিয়ে আবারও ২য় ধাপে ভর্তির জন্য আবেদন করতে হবে। আসন নির্ধারিত থাকায় তখন পছন্দের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পাবে কি না, তার নিশ্চয়তা নেই।

জানা গেছে, প্রথম দফায় মনোনীতদের ১১ জুন থেকে ১৮ জুনের মধ্যে ভর্তি নিশ্চিত করতে হবে। আর এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে টেলিটক বা মোবাইল ব্যাংকিং রকেট ও শিওর ক্যাশের মাধ্যমে বোর্ডের রেজিস্ট্রেশন ফি ১৯৫ টাকা ফি পরিশোধ করতে হবে। এই প্রক্রিয়ায় ভর্তি নিশ্চিত করতে না পাড়লে মনোনয়ন বাতিল হয়ে যাবে। তার আবেদনটিও বাতিল হয়ে যাবে।

আগামী ১৯ ও ২০ জুন ২য় পর্যায়ের আবেদন গ্রহণ করা হবে। আগামী ২১ জুন রাত ৮টার পর ২য় পর্যায়ে নির্বাচিতদের ফল প্রকাশ করা হবে। ২২ ও ২৩ জুন ২য় পর্যায়ের সিলেকশন নিশ্চায়ন করতে হবে।

  একাদশে ভর্তি বঞ্চিতদের উন্মুক্ত ভর্তি আবেদন আজ থেকে শুরু

আগামী ২৪ জুন রাত ৮টার পর থেকে ৩য় পর্যায়ের আবেদন গ্রহণ করা হবে। আগামী ২৫ জুন রাত ৮টার পর ৩য় পর্যায়ের আবেদনের ফল প্রকাশ করা হবে। আগামী ২৭ থেকে ৩০ জুন ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হবে। ১ জুলাই থেকে একাদশ শ্রেণিতে ক্লাস শুরু হবে।

উল্লেখ্য, গত ২৩ মে শেষ দিন পর্যন্ত ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড ও একটি মাদরাসা বোর্ডের অধীনে থাকা কলেজগুলোতে ভর্তির জন্য মোট আবেদন কারেন প্রায় ১৪ লাখ ভর্তিচ্ছু। এদের মধ্যে অনলাইনে আবেদন করেছে ১০ লাখ ৩৯ হাজারের বেশি এবং এসএমএসের মাধ্যমে ৩ লাখ ৬৫ হাজারের বেশি ভর্তিচ্ছুক। শুধু ঢাকা বোর্ডেই ৩ লাখ ৯৫ হাজারের বেশি ভর্তিচ্ছুক একাদশে ভর্তির আবেদন করেছেন। এ বছর মোট এসএসসি উত্তীর্ণর সংখ্যা ১৭ লাখ ৪৯ হাজার ১৬৫ জন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *