এবার মাদ্রাসা ছাত্রীকে যৌন হয়রানি, ঐ মাদ্রাসা শিক্ষক গ্রেপ্তার

সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার গোবিন্দ নগর ফজলিয়া ফাজিল মাদ্রাসার এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে মাদ্রাসার শিক্ষক রাজিবুর রহমানকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শনিবার সন্ধ্যায় ছাতক থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে।

এর আগে দুপুরে রাজিবুলের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করে ওই ছাত্রীর পরিবার। মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর অভিযোগ, মাদ্রাসার ইংরেজি শিক্ষক রাজিবুর রহমান তাকে যৌন হয়রানি করেন। অভিযুক্ত শিক্ষকের ব্যাপারে অধ্যক্ষের কাছে দুই দফা বিচার চাইলেও মাদ্রাসার অধ্যক্ষ কোনো বিচার করেননি। যে কারণে সে চলমান আলিম পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেনি।

ওই শিক্ষার্থী জানায়, ২০১৮ সালের অক্টোবর মাসে শিক্ষক রাজিবুর রহমানের বাসায় প্রাইভেট পড়তো সে। এ সময় তার সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ করা হয়। এছাড়া নানাভাবে তাকে যৌন হয়রানি করেন এবং বিভিন্ন প্রলোভন দিয়েছেন ওই শিক্ষক। সে ৬ দিন প্রাইভেট পড়ে এ শিক্ষকের কাছে পড়া বন্ধ করে দেয়। অধ্যক্ষের কাছে এ নিয়ে বিচার প্রার্থী হলেও সে কোন বিচার পায়নি। এ জন্য লেখাপড়া বন্ধ করে দিয়ে আলিম পরীক্ষায় অংশ নেয়নি সে।

  রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে মর্গ স্থাপন না করার দাবি এলাকাবাসীর

এ ঘটনায় শিক্ষার্থী বাদী হয়ে শনিবার থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়। শিক্ষার্থীর পিতা থানায় অভিযোগ দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এ ব্যাপারে অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুস সালাম আল মাদানী বলেন, আমাকে এই বিষয়ে দুই দিন মোবাইল ফোনে শিক্ষার্থীর পরিবার থেকে জানানো হয়েছে। আমি বিষয়টি নিষ্পত্তির জন্য চেষ্টা করেছি। এ বিষয়ে নিয়ে গত ২৮ মার্চ মাদ্রাসায় একটি সভাও অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ছাতক থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতিকুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। আমরা ওই অভিযুক্ত মাদ্রাসা শিক্ষক রাজিবুর রহমানকে গ্রেপ্তার করেছি।

[wpdevart_like_box profile_id=”https://www.facebook.com/amaderbanicom-284130558933259/” connections=”show” width=”300″ height=”550″ header=”small” cover_photo=”show” locale=”en_US”]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *