Shadow

খোকসায় মহিলাকে কাঁচি দিয়ে কুপিয়ে জখম

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শনিবার বিকেলে কুষ্টিয়া খোকসা উপজেলা মোর্শেদপুর গ্রামে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে পতিলা (৪০) নামের এক গৃহবধূকে কাঁচি দিয়ে কুপিয়ে জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। পতিলা এখন কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। পতিলা কুষ্টিয়া খোকসা উপজেলার দিনমজুর কালাম শেখের স্ত্রী।

পতিলার মেয়ে ডলি জানান, গতকাল বিকেলে বাড়ির উঠান থেকে বৃষ্টির বেড় করছিল আমার মা। এমন সময় পাশের বাড়ির কাশেমের ছেলে রেজাউল (৫০), রেজাউলের ছেলে আলিফ (৩০) ও আলিফের ছোট ভাই আসিফ (২৫) এর সাথে বাকবিতণ্ডার একপর্যায়ে রেজাউল মাথার ওপর কাঁচি দিয়ে কোপ দেয়। এরপর রেজাউল এর দুই ছেলে আলিফ, আসিফ ও তার মা এসে আমার মাকে বেধড়ক কাঠের বাটাম দিয়ে পেটাতে থাকে। এসময় যে ঠেকাতে আসে তার উপরেই চড়াও হয় রেজাউল রেজাউল এর পরিবারের লোকজন। এরই এক পর্যায়ে প্রতিবেশীরা জড়ো হয়ে আমার মাকে উদ্ধার করে। আমার মায়ের উপর হামলার সময় আমার বাবা বাসায় ছিল না। আমার মা এখন কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ৬নং ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে।

পতিলার ভাই আব্দুল কাদের জানান, আমার বোন গরিব। তার স্বামী দিন আনে দিন খায়। বেশ কয়েক বছর আগে এরা রেজাউলের বাবা কাশেমের কাছ থেকে জমি ক্রয় করে বাড়ি করে। এখন মাঝেমধ্যে রেজাউল আমার বোনদের এখান থেকে বাড়ি ভেঙে অন্য জায়গায় চলে যেতে বলে। তারা অপারগতা প্রকাশ করার জন্য মাঝেমধ্যেই ঝামেলা করে রেজাউল। আজ হাসপাতালে রেজাউলের বাবা কাশেম ও স্থানীয় মেম্বার এসেছিল। তারা মামলা করতে নিষেধ করেছে। মামলা করা হবে কিনা এবিষয়ে পতিলার জামাইরা সীদ্ধান্ত নেবে।

  গৃহবধূকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে উঠিয়ে এনে গণধর্ষণ!

এ ব্যাপারে খোকসা থানার অফিসার ইনচার্জ এ বি এম মেহেদী মাসুদকে ফোনে পাওয়া যায়নি।

শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *