ঠাকুরগাঁওয়ে ৪ ভুয়া ডিজিএফআই কর্মকর্তা গ্রেফতার

ভুয়া ডিজিএফআই পরিচয়ে ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসকের সাথে প্রতারণা করতে গিয়ে ধরা খেয়েছে চার প্রতারক।

বুধবার দুপুরে ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক অফিস কক্ষে প্রতারণা করার সময় তাদের হাতেনাতে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

প্রতারণাকারিরা হলেন- ইসমাইল হোসেন (৪৫) রফিউল ইসলাম (৩৮) বাবর আলী (৪৭) ও নজরুল ইসলাম (৫২)।পরে প্রতারণার অভিযোগে চার ব্যক্তিকে সাত দিন করে বিনাশ্রম কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

আটককৃত ইসমাইল হোসেন ঠাকুরগাঁও রাণীশংকৈল উপজেলার সাবুডাঙ্গা চেংমারি গ্রামের আজিম উদ্দীনের ছেলে, রফিউল ইসলাম একই উপজেলার ভান্ডারা গ্রামের রিয়াজুল ইসলাম ও নজরুল ইসলাম এমদাদুল হকের ছেলে এবং বাবর আলী একই উপজেলার নন্দুয়া সন্দারই গ্রামের রওশন আলীর ছেলে।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের ম্যজিস্ট্রেট নেজারত ডেপুটি কালেক্টর (এনডিসি) তরিকুল ইসলাম জানান, দুপুরে ভুয়া ডিজিএফআই পরিচয়ে চারজন ব্যক্তি গণভবনের ডিজিএফআই সাজ্জাদ চৌধুরীর সাক্ষরিত একটি চিঠি নিয়ে জেলা প্রশাসক ড. কে এম কামরুজ্জামান সেলিমের কক্ষে প্রবেশ করে এবং টেন্ডার বিষয়ে চাপ প্রয়োগ করে।

  দূর্গাপুরে চ্যালেঞ্জ দিয়ে ফসলি জমিতে পুকুর খনন, খনন বন্ধে কর্তৃপক্ষের অনিহা

এসময় জেলা প্রশাসকের সন্দেহ হলে তিনি গোপনে পুলিশে খবর দেন। পুলিশ এসে তাদের আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তারা প্রতারণার কথা স্বীকার করে। পরে তাদের টাউট আইন-৮০৭৯ ,আইনে অপরাধের অভিযোগে সাত দিন করে বিনাশ্রম কারাদন্ড দেয়া হয়।

এসময় আটকৃত প্রতারকদের কাছ থেকে তিনটি মোটরসাইকেল, ৪টি মোবাইল সেট, নগদ ২২ হাজার ৭০৪ টাকা ও বিভিন্ন কাগজ জব্দ করে ভ্রাম্যমান আদালত।

ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি জানান, জেলা প্রশাসন কার্যালয় থেকে ফোন পাওয়ার সাথে সাথে পুলিশ জেলা প্রশাসকের কক্ষ থেকে চার প্রতারককে আটক করে। পরে ভ্রাম্যমান আদালত তাদের সাত দিন করে বিনাশ্রম কারাদন্ড দিলে পুলিশ তাদের ঠাকুরগাঁও জেলা কারাগারে প্রেরণ করে। প্রতারক চক্রের সাথে আরো কেউ জড়িত রয়েছে কি না পুলিশ তা তদন্ত করে দেখছে।

আমাদের বাণী-আ.আ.হ/মৃধা

[wpdevart_like_box profile_id=”https://www.facebook.com/amaderbanicom-284130558933259/” connections=”show” width=”300″ height=”550″ header=”small” cover_photo=”show” locale=”en_US”]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *