করোনা শিক্ষার্থী

নিজস্ব সংবাদদাতা, ঢাকা;  মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস সংকটে চলমান সাধারণ ছুটি আর না বাড়ানো হলেও প্রাক-প্রাথমিক থেকে উচ্চশিক্ষা পর্যন্ত দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের সময়সীমা বেড়েছে। আজ বুধবার জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এ তথ্য জানান।

সাধারণ ছুটি আর বাড়বে না জানিয়ে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘ছুটি সীমিত হচ্ছে। আমরা প্রজ্ঞাপনটি কিছুক্ষণ আগে পেলাম। তাতে প্রধানমন্ত্রীর স্বাক্ষর করা। আগামীকাল প্রজ্ঞাপনটি জারি করা হবে। অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড সীমিত আকারে চালু রাখা, পাশাপাশি নাগরিক জীবনের সুরক্ষার জন্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।’

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ব্যাপারে সরকারি সিদ্ধান্তের ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আগামী ১৫ জুন পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। তবে অনলাইন এবং ডিসটেন্স লার্নিং কোর্স চালু থাকবে।’

‘সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্বশাসিত এবং বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো নিজ ব্যবস্থাপনায় সীমিত আকারে চলবে। সেক্ষেত্রে বয়স্ক লোকজন অফিসে যাবে না, অসুস্থ লোকজন অফিসে যাবে না, সন্তানসম্ভবা নারী অফিসে যাবে না’ বলেও জানান জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী।

এর আগে পবিত্র রমজান মাস, জুমাতুল বিদা, শবে কদর ও ঈদের জন্য আগামী ৩০ মে পর্যন্ত দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার ঘোষণা দেওয়া হয়। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব রোধে গত ১৭ মার্চ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে।

  টিভিতে কারিগরির ক্লাস শুরু ১৯ এপ্রিল, রুটিন দেখুন!

স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত হেলথ বুলেটিনের সর্বশেষ (২৭ মে ২০২০) তথ্য অনুযায়ী, করোনাভাইরাস শনাক্তে গত ২৪ ঘণ্টায় সাত হাজার ৮৪৩টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় আগের কিছু মিলিয়ে আট হাজার ১৫টি নমুনা। এ নিয়ে দেশে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হলো দুই লাখ ৬৬ হাজার ৪৫৬টি। নতুন নমুনা পরীক্ষায় করোনার উপস্থিতি পাওয়া গেছে আরও এক হাজার ৫৪১ জনের দেহে। নমুনা পরীক্ষার তুলনায় গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ২২ শতাংশ। এ নিয়ে দেশে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৩৮ হাজার ২৯২ জন। আক্রান্তদের মধ্যে মারা গেছেন আরও ২২ জন। ফলে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৫৪৪ জনে। ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৩৪৬ জন এবং এ পর্যন্ত সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ৭ হাজার ৯২৫ জন। সুস্থতার হার ২০.৭৪ শতাংশ এবং মৃত্যুর হার ১.৪২ শতাংশ। মারা যাওয়া ব্যক্তিদের সম্পর্কে জানানো হয়, পুরুষ ২০ জন ও নারী দুইজন। বয়স বিশ্লেষণে জানা যায়, ০-১০ বছরের মধ্যে একজন, ২১-৩০ দুইজন, ৩১-৪০ দুইজন, ৪১-৫০ দুইজন, ৫১-৬০ সাতজন, ৬১-৭০ সাতজন, ৭১-৮০ বছরের মধ্যে একজন।

আমাদের বাণী ডট কম/২৭  মে ২০২০/সিসিপি